প্রতিদিন দই খাওয়ার উপকারিতা

খুব সহজেই বানানো যায় এমন একটি খাবার হলো দই। সুস্থ থাকার জন্য পুষ্টিকর দই রাখতে পারেন দৈনন্দিন খাদ্য তালিকায়। এতে রয়েছে প্রোটিন, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন ডি ও বিভিন্ন ধরনের পুষ্টিগুণ যা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত উপকারি।

দই খেলে কি উপকার পাবেন দেখে নিন-

হাড়ের জন্য উপকারী
দই হাড়ের জন্যও খুব উপকারী। ইউনাইটেড স্টেটস ডিপার্টমেন্ট অব এগ্রিকালচার বলছে, প্রতি ২৫০ গ্রাম দইয়ে ২৭৫ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম থাকে। প্রতিদিন এই পরিমাণ ক্যালসিয়াম গ্রহণ করলে হাড়ের ঘনত্ব বাড়ার পাশাপাশি হাড়কে শক্ত করে

হজমে সহায়তা
দই এমন একটি খাবার, যাতে জীবিত ব্যাকটেরিয়া থাকে। এগুলো হজম প্রক্রিয়ায় কার্যকর ভূমিকা পালন করে। বদহজমের ওষুধ হিসেবে দইয়ের পরিচিতি রয়েছে।

সুন্দর ও স্বাস্থ্যবান ত্বক
দই ত্বককে সুন্দর ও স্বাস্থ্যবান করে তোলে। পাশাপাশি প্রাকৃতিকভাবে ত্বকের শুষ্কতাও দূর করে। অনেকেই ত্বকের সৌন্দর্যের জন্য নানা ধরনের ফেসপ্যাক ব্যবহার করেন। সেগুলোর পরিবর্তে নিয়মিত দই খেলে সন্তোষজনক উপকার পাওয়া যাবে।

উচ্চরক্তচাপ দূর করা
আমেরিকান হার্ট এসোসিয়েশনের (এএইচএ) হাই ব্লাড প্রেসার রিসার্চ সায়েন্টিফিক সেশনে উপস্থাপিত একটি গবেষণা বলছে, যারা নিয়মিত ফ্যাটহীন দই খায়, তাদের উচ্চরক্তচাপে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা অন্যদের চেয়ে ৩১ শতাংশ কম।

নারীদের যৌনাঙ্গের সংক্রমণ দূর
নারীদের যৌনাঙ্গে সংক্রমণ প্রতিরোধে কার্যকর ভূমিকা পালন করে দই। এতে ল্যাকটোব্যাকিলাস অ্যাসিডোফিলাস নামের একধরনের ব্যাকটেরিয়া থাকে, যা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করে।

দই কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে
অকাল বার্ধক্য ও চুল পাকা বন্ধ করে। দই ত্বকে লাগালে ত্বক মসৃণ হয় ও দাগ দূর হয়। শিশু থেকে বৃদ্ধ - দই সবার জন্যেই পুষ্টিকর। দই মানুষের শরীরে ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস গ্রহণে সাহায্য করে।

দই যে আয়ু বাড়ায়
গবেষণায় প্রমাণিত দই নানা ধরনের রোগ ঠেকায়, এমনকি ক্যান্সারের বিরুদ্ধেও প্রতিরোধ গড়ে তোলে।