ওজন কমানোর অদ্ভুত কৌশল

না খেয়ে ওজন কমানোর প্রবণতা ইদানীং একটু বেশিই দেখা যাচ্ছে। ওজন কমানো আসলে খুব কঠিন কাজ নয়। একটু ইচ্ছে আর সামান্য ধৈর্য থাকলেই তা সম্ভব। কয়েকটি ঘরোয়া পদ্ধতি অবলম্বন করে খুবই কার্যকরভাবে ওজন কমানো সম্ভব।

চলুন তাহলে যেনে নেই সেই সব ঘরোয়া উপায় গুলো সম্পর্কে-

খাদ্যাভ্যাসে বেবি ফুড:

এই ধরনের খাদ্যাভ্যাসে যাওয়ার অন্যতম কারণ হল 'বেবি ফুড'য়ে ক্যালরি কম থাকে। অনেকে প্রতিবেলার খাবার বা নাস্তা হিসেবে শিশুর জন্য নির্ধারিত খাবারকে বেছে নেন। তবে এই ধরনের ডায়েট মেনে চলতে গেলে পরিমাণে অনেক বেশি খাবার খেতে হয়।

জুস:

জুস ডায়েট করলে তাতে শক্ত খাবার থাকেনা এবং এটা শাক সবজি ও ফল থেকে গৃহিত হয় তাই ক্যালরি গ্রহণের পরিমাণ সীমিত থাকে। ক্যালরি কম গ্রহণ করার ফলে শরীরের ওজন হ্রাস পায় ঠিকই তবে দীর্ঘস্থায়ী নয়। কারণ ক্যালরি ছাড়া বেঁচে থাকা সম্ভব না।

আয়নার সামনে বসে খাওয়া:

আয়নার সামনে বসে খাওয়ার ধারণাটা বেশ অদ্ভুত। এর মূল কারণ হল- আয়নার সামনে বসে খেলে নিজের খাওয়ার পরিমাণ ও ধরণ খেয়াল করা যায়। ফলে ক্যালরি গ্রহণের বিষয়ে সচেতন থাকা যায়। এতে ওজন বাড়ার ঝুঁকি কমে যায়।

গাঢ় রংয়ের পাত্রে খাওয়া:

বিশেষ করে গাঢ় নীল রংয়ের পাত্রে খেলে নাকি খাবার কম গ্রহণ করা হয়। কারণ সাদা রংয়ের চাইতে গাঢ় রংয়ের পাত্রে খাবারের পরিমাণ বেশি দেখায়। ফলে কম খাবার নিলেও দেখতে বেশি লাগে।

কাঁচা খাবার খাওয়া:

তাজা উদ্ভিজ্জ খাবার খাওয়াকে 'র ফুড ডায়েট' বলা হয়। যেসব খাবার রান্না করা নয় বা ৪৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি তাপমাত্রার গরম করা হয় না সেসব খাবার এই ডায়েটের অন্তর্গত। কাঁচা খাবার যতটা সম্ভব ভেষজ হওয়া উচিত।