করোনা প্রতিরোধে সবচেয়ে কার‌্যকর জনসনের টিকা

করোনার নতুন ধরনসহ কোভিড-১৯ রোগ প্রতিরোধে জনসন অ্যান্ড জনসনের এক ডোজের টিকা সর্বোচ্চ কার্যকর। বুধবার মার্কিন খাদ্য ও ঔষধ প্রশাসনের নথিতে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

বলা হয়, গুরুতর পর্যায়ের সংক্রমণ থেকেও জনসন অ্যান্ড জনসনের সিঙ্গেল ডোজ টিকা সুরক্ষা দিবে। গবেষকরা নিশ্চিত করেছেন, সামগ্রিকভাবে ভ্যাকসিনটি প্রায় ৬৬ শতাংশ কার্যকর।

এমন একসময় এই খবর এসেছে, যখন এই টিকার অনুমোদন দিতে শুক্রবার একটি স্বতন্ত্র প্যানেলের সভা ডাকা হয়েছে। এ নিয়ে তৃতীয় আরেকটি টিকার অনুমোদন পেতে যাচ্ছে করোনায় বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশটিতে। বার্তা সংস্থা এএফপি ও বিবিসি এমন খবর দিয়েছে।

ব্যাপক রোগীভিত্তিক পরীক্ষায় তীব্র কোভিড রোগের বিপরীতে জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকার যুক্তরাষ্ট্রে ৮৫ দশমিক ৯ শতাংশ, দক্ষিণ আফ্রিকায় ৮১ দশমিক ৭ শতাংশ ও ব্রাজিলে ৮৭ শতাংশ ৬ শতাংশ কার্যকারিতা দেখা গেছে।

এসব অঞ্চলে ৩৯ হাজার ৩২১ জন এই পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন। তাতে দেখা গেছে, তীব্র কোভিড-১৯ রোগ প্রতিরোধে ৮৫ দশমিক ৪ শতাংশ কার্যকর এই টিকা। কিন্তু রোগের মাঝারি ধরনের বিপরীতে কার্যকারিতা নেমে ৬৬ দশমিক ১ শতাংশ হয়েছে।

বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানটি তাদের উদ্ভাবিত ভ্যাকসিনের মান যাচাই এবং প্রয়োগের ছাড়পত্র চাইলে গবেষকদের পর্যবেক্ষণে বেরিয়ে আসে এসব তথ্য। লাতিন আমেরিকা এবং দক্ষিণ আফ্রিকার ৪৪ হাজার মানুষের মধ্যে টিকাটির চূড়ান্ত পরীক্ষা চালানো হয়। তখন বলা হয়, টিকা দেয়ার ২৮ দিনের মধ্যে কোনো স্বেচ্ছাসেবীকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়নি; ঘটেনি কোনো মৃত্যুও।

এদিকে, এ বছরই বিশ্বে ১০০ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন সরবরাহের লক্ষ্য জনসন অ্যান্ড জনসনের।