রসুনের অবিশ্বাস্য ৬ গুণ

প্রাচীনকাল থেকেই রসুনকে বিভিন্ন রোগ ও ত্বকের সমস্যার প্রাকৃতিক সমাধান হিসেবেও ব্যবহার হয়ে আসছে। বিভিন্ন স্বাস্থ্য সমস্যা এবং ব্রণের চিকিৎসা থেকে শুরু করে খুশকি ও মশা থেকে মুক্তি পাওয়ার সমাধান পর্যন্ত করতে পারে রসুন।

১. পেটের জ্বালা কমাতে

বদহজম বা অ্যাসিডিটির সমস্যার জন্য হওয়া পেটের জ্বালা কমাতে অনেক কার্যকরি হচ্ছে রসুন। এর জন্য এক চামচ পরিমাণ রসুনের কোয়া থেতলে নিয়ে তার সঙ্গে আধাচামিচ পরিমাণ মধু মিশিয়ে সকালে খালি পেটে খান। এতেই দূর হবে পেট জ্বালার সমস্যা।

২. ব্রণ প্রতিরোধ করে

রসুনে প্রদাহবিরোধী বৈশিষ্ট্য থাকার কারণে এটি ব্রণের ব্যথা কমায় এবং রসুনের অ্যালিসিনের উপস্থিতি ব্যাক্টেরিয়া হত্যা করে। ফলে আপনার ত্বকের ছিদ্রগুলো আটকে রেখে ব্রণের সমস্যা দূর করতে সহায়তা করতে পারে।

এর জন্য শুধু রসুনের কোয়া অর্ধেক করে কেটে নিয়ে আক্রান্ত স্থানে ঘষুণ। এতেই পাবেন উপকার।

৩. কাশি থেকে মুক্তি মেলে

সর্দি-কাশি বা গলা চুলকানোর সমস্যা দূর করতে পারে রসুন। এর জন্য কয়েকটি রসুনের কোয়া এক কাপ পানিতে ৫ মিনিটের জন্য সিদ্ধ করুন। পরে তা ছেঁকে নিয়ে কিছু পরিমাণে মধু মিশিয়ে গরম গরম পান করুন। এতেই কমে যাবে সর্দি-কাশির সমস্যা।

৪. খুশকি দূর করে

অনেক আগে থেকেই চুল ও ত্বকের বিভিন্ন সমস্যার সমাধানে ব্যবহার হয়ে আসছে রসু ন। আর খুশকি দূর করতে এটি বিশেষভাবে কার্যকরী। এর জন্য ৫টি টিপস দেখুন এখানে- স্থায়ীভাবে খুশকি দূর করতে রসুনের ৫ ব্যবহার

৫. মশা দূর করে

মশা তাড়াতেও অনেক কাজ করে রসুন। এর জন্য ৬-৮টি রসুনের কোয়া নিয়ে কিছু পানিতে পাঁচ-১০ মিনিটের জন্য সিদ্ধ করুন। পরে সেই পানি স্প্রে বতলে নিয়ে ঘরে ছড়ালেই দূর হবে মশা।

৬. কাঁটা ফোটার জ্বালা কমায়

স্প্লিন্টার বা কাঠ অথবা কাচের বিভিন্ন তীক্ষ্ণ অংশ ত্বকে প্রবেশ করে অনেক জ্বালার সৃষ্টি করতে পারে।  এ থেকে পরিত্রাণ পেতে, অর্ধেক রসুন কেটে নিয়ে একটি ব্যান্ডেজের সঙ্গে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় ব্যান্ডেজ করে রাখুন। রসুনের অ্যান্টিব্যাক্টেরিয়াল বৈশিষ্ট্য প্রাকৃতিকভাবে আপনার স্প্লিন্টার জ্বালা দূর করবে।