ধর্ষণের আশঙ্কা কমানোর জন্য আত্মরক্ষার প্রশিক্ষণ দিতে হবে: বি চৌধুরী

ধর্ষণের আশঙ্কা কমানোর জন্য মা-বোন ও শিশুদের আত্মরক্ষার প্রশিক্ষণ দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিকল্পধারা প্রেসিডেন্ট ও সাবেক রাষ্ট্রপতি ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী।

তিনি বলেন, আমাদের দেশে নারী ও শিশু নির্যাতনে বিদ্যমান আইনটি শক্ত হলেও এর প্রয়োগ না থাকার কারণে দেশে শিশু ও নারী নির্যাতনের হার ভয়ঙ্করভাবে বাড়ছে। এতে বিশ্বের বুকে আমাদের মাথা নিচু হয়ে যাচ্ছে। ধর্ষণের আশঙ্কা কমানোর জন্য মা-বোন ও শিশুদের আত্মরক্ষার প্রশিক্ষণ দিতে হবে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে নারী ও শিশু নির্যাতন আইন (২০০৩)-এর সুষ্ঠু প্রয়োগের দাবিতে বিকল্পধারা আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন। এছাড়াও ১২ বছরের নিচে শিশু ধর্ষণের শাস্তি আমৃত্যু কারাদণ্ডের বিধান করার দাবি জানান সাবেক এ রাষ্ট্রপতি।

প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ধর্ষণের বিরুদ্ধে প্রচারণা বাড়ানোর আহ্বান জানিয়ে বি চৌধুরী বলেন, ধর্ষকের ছবি ও পরিচয় পত্রিকা ও টেলিভিশনে বড় করে প্রকাশ ও প্রচার করতে হবে। ধর্ষণ সম্পর্কিত বিচার-আপিল ইত্যাদি নুন্যতম সময়ে শেষ করার ব্যবস্থা করা উচিত।

এ সময় ‘শিশু ধর্ষণ’ ও ‘ধর্ষণজনিত কারণে ধর্ষিতার মৃত্যু’ হলে ধর্ষককে রাষ্ট্রপতি যেন ক্ষমা না করেন, এ ধরণের প্রতিশ্রুতি প্রত্যাশা করেন তিনি। বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেন, এ বাহিনীতে মহিলা সদস্যদের সংখ্যা বাড়াতে হবে, উন্নত প্রশিক্ষণ দিতে হবে এবং তাদের আরও ক্ষমতায়ন করতে হবে।

জেল থেকে বের হবার পরও কোনো ধর্ষকের জন্য সরকারি-বেসরকারি চাকরি নিষিদ্ধ করার কথা চিন্তা করার জন্য সমাজ ও রাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, বিশেষ করে স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, বিশ্ববিদ্যালয়ে এদের প্রবেশাধিকার নিষিদ্ধ নিশ্চিত করলে সমাজ সুন্দর হবে।