কাশ্মীর ইস্যুতে জলঘোলার চেষ্টা হলে ব্যবস্থা: বেনজীর

কাশ্মীর ভারতের আভ্যন্তরীণ বিষয় মন্তব্য করে র‌্যাব মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ বাংলাদেশে এ নিয়ে কোনো ধরনের  জলঘোলা না করতে সতর্ক করে দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, এমনটি করা হলে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শুক্রবার (৯ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে ‘ঈদে নিরাপত্তা’ নিয়ে করা সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন র‌্যাব প্রধান।

সম্প্রতি ভারতর সরকার কাশ্মীরের বিশেষ সাংবিধানিক সুবিধা বাতিল করেছে। ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের ফলে এই রাজ্যের আলাদা পতাকা আর থাকছে না।

৩৭০ ধারাটি জম্মু ও কাশ্মীরকে কেবল নিরাপত্তা, যোগাযোগ ও বৈদেশিক বিষয় ছাড়া অন্য যেকোনো বিষয়ে নিজস্ব সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার দিয়েছিল। এছাড়াও, এই ধারার ফলে এই রাজ্যে কোনো নীতি বা সাংবিধানিক ক্ষমতা প্রয়োগের ক্ষেত্রে রাজ্যের আইনসভার অনুমতি নিতে হতো কেন্দ্রকে।

ভারত সরকারের নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জম্মু ও কাশ্মীর পুনর্গঠিত হবে। রাজ্যটি দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত হবে- একটি জম্মু ও কাশ্মীর, অন্যটি লাদাখ। এর মধ্যে কাশ্মীরে আইনসভা থাকবে। কিন্তু লাদাখে আইনসভা থাকবে না।

মুসলমান অধ্যুষিত কাশ্মীর নিয়ে এই সিদ্ধান্তে বাংলাদেশের সাধারণ জনগণের মধ্যে বেশ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে ভারত সরকারের সমালোচনা করে নানা বক্তব্য এসেছে।

এ সংক্রান্ত এক প্রশ্নে বেনজীর বলেন, আমরা আশা করব ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় বা কাশ্মীরের বিষয় নিয়ে কোনো সুস্থ স্বাভাবিক মানুষ আমার দেশের পানি ঘোলা করার চেষ্টা করবেন না। এরপরও যদি কেউ সে চেষ্টা করে তবে আইনানুগ ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে।

যেটি আমাদের দেশের সমস্যা নয়, বিষয়ও নয়, সেটি নিয়ে আমার দেশে অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে, অযাচিতভাবে ঝামেলা সৃষ্টির চেষ্টা করলে অবশ্যই কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে।

তিনি আরও বলেন, আল্ট্রা ইসলামিস্ট এর সংখ্যা বাংলাদেশে বেশি না। যারা রয়েছে তারাও আমাদের ২৪ ঘণ্টা নজরদারিতে রয়েছে।