আবরার ফাহাদ হত্যায় জাতিসংঘের নিন্দা, স্বচ্ছ তদন্ত দাবি

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে জাতিসংঘ।

বুধবার (৯ অক্টোবর) দুপুরে ঢাকায় জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কারীর দপ্তর থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এ নিন্দা জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, জাতিসংঘের বাংলাদেশ দপ্তর লক্ষ্য করছে অভিযুক্তদের ধরার ব্যাপারে কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নিয়েছে। একটি স্বচ্ছ প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে ন্যায়বিচারের জন্য স্বাধীন তদন্ত এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে উৎসাহিত করে জাতিসংঘ।

এতে আরও বলা হয়, মতপ্রকাশের স্বাধীনতা একটি মানবাধিকার। এজন্য কারও হয়রানি, নির্যাতন বা হত্যার শিকার হওয়া উচিত নয়।

এদিকে বুধবার ‘ডিকাব টক’ অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বাংলাদেশে নিযুক্ত জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কারী মিয়া সেপ্পো বলেন, এ ঘটনা ভাবা তো একটি আতঙ্কজনক দুঃস্বপ্ন।

তিনি আরও বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া দুই সন্তানের মা হিসেবে এটা ভাবা আমার কাছে আতঙ্কের। সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থী যাতে নিরাপদে থাকতে পারে, সে ব্যাপারে জনগণের মাঝে আস্থা থাকতে হবে।

উল্লেখ্য, রবিবার (৬ অক্টোবর) রাতে হলের দ্বিতীয়তলা থেকে আবরার ফাহাদ নামের এক ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করে বুয়েট কর্তৃপক্ষ।

নিহত আবরার ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। তার গ্রা‌মের বা‌ড়ি কু‌ষ্টিয়ার কুমারখালীতে।

মঙ্গলবার বেলা পৌনে ১১টায় নিজ বাসার সামনে আবরারের তৃতীয় জানাজা শেষে স্থানীয় রায়ডাঙ্গা কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়েছে।