যাত্রা শুরু ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ডের

প্রতিষ্ঠার দুই বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো পাবলিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ডের অধীনে।

শনিবার (২ নভেম্বর) জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট পরীক্ষার (জেএসসির) মধ্য দিয়ে পরিপূর্ণ যাত্রা শুরু করে দেশের ১১তম শিক্ষা বোর্ড-'মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বোর্ড, ময়মনসিংহ।

সকালে বিভিন্ন পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. গাজী হাসান কামাল জানান, সকাল ১০টা থেকে এ বোর্ডে পরীক্ষা শুরু হয়। চলবে দুপুর ১টা পর্যন্ত। ১২৫টি কেন্দ্রে ১ হাজার ৪শ ৯০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১ লাখ ৬৩ হাজার ৬৫২ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। এর মধ্যে ৮০ হাজার ৮৫৫জন ছাত্র ও ৮২ হাজার ৭৯৭ জন ছাত্রী।

২০২০ সালে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষাও এই বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত হবে। ময়মনসিংহ, নেত্রকোনা, শেরপুর ও জামালপুর জেলার নিন্ম মাধ্যমিক, মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো এ বোর্ডের অধীনে রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, নবগঠিত ময়মনসিংহ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বোর্ড ডিজিটালে রূপান্তর হচ্ছে। উচ্চ মাত্রার ওয়াই-ফাই চালু করা হয়েছে বোর্ড অফিসে। শুরু থেকেই ই-জিপি টেন্ডার কার্যক্রম চালু করা হয়েছে। ক্লোজ সার্কিট ক্যামরার আওতায় আনা হয়েছে বোর্ড অফিস। দ্রুত সেবা দেয়ার জন্য ই-ফাইলিং ও অনলাইন শিক্ষা প্রোফাইল কার্যক্রম চালু হয়েছে। নিয়ম-নীতি মেনেই স্কুল-কলেজের রেজিস্ট্রেশন, পরিদর্শন, নবায়ন, পাঠদান, স্বীকৃতি ও অনুমোদনের কাজ পরিচালিত হচ্ছে।

প্রস্তাবিত ১৭৫ জনবলের বিপরীতে মাত্র ২৯ জন (১৪ জন প্রেষণে, ১২ জন অস্থায়ী এবং ৩ জন আউটসোর্সিং) দিয়ে কার্যক্রম চলছে।

জনবলের তীব্র সংকটের কারণে অমানসিক কষ্ট করতে হচ্ছে। তবু কাঙ্খিত সেবা দিতে পিছপা হচ্ছেন না শিক্ষা বোর্ডের কর্মকর্তারা। অতি জরুরি ভিত্তিতে জনবল নিয়োগ  প্রয়োজন।

সরকারী মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতি ময়মনসিংহ অঞ্চলের নব-নির্বাচিত সভাপতি ও বিদ্যাময়ী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাছিমা আক্তার জানান, নতুন শিক্ষা বোর্ডে প্রথম জেএসসি পরীক্ষা গ্রহন করায় পুরো বিভাগবাসী আনন্দিত। আমরা সকলেই শান্তিপ‚র্ণভাবে পরীক্ষা গ্রহনে অঙ্গীকারাবদ্ধ।

বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও ময়মনসিংহ নাসিরাবাদ কলেজিয়েট স্কুলের প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন বলেন, এ অঞ্চলের শিক্ষক সমাজ বোর্ড প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে আসছিল। ময়মনসিংহে বোর্ড না থাকায় সবচেয়ে বেশী কষ্টের শিকার হয়েছিল শিক্ষকরা। বোর্ড প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে শিক্ষকদের সীমাহীন কষ্ট ও দুর্ভোগের অবসান হয়েছে। নতুন বোর্ডের পাবলিক পরীক্ষা কার্যক্রম শুরু হওয়ায় এ অঞ্চলের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা দারুন খুশি।

২০১৫ সালের ১৩ অক্টোবর ময়মনসিংহ বিভাগ ঘোষণার পর ২৮ আগস্ট ২০১৭ সালে ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ড গঠনের প্রজ্ঞাপন জারি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। বাংলাদেশের সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের মধ্যে এই শিক্ষা বোর্ড ৯ম। সকল শিক্ষা বোর্ডের মধ্যে ১১তম শিক্ষা বোর্ড।