একনেকে সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকার ৬ প্রকল্পের অনুমোদন

রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ভৌত সুরক্ষা ব্যবস্থা নির্মাণসহ ৪ হাজার ৪৪৭ কোটি ৭৬ লাখ টাকা ব্যয়ে ৬ প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। 

মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) সকালে রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা। 

সভা শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এম.এ.মান্নান সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

পরিকল্পনামন্ত্রী এম.এ.মান্নান বলেন, অনুমোদিত প্রকল্পে সরকারি অর্থায়ন ৪ হাজার ৪৩৯ কোটি ৮৬ লাখ টাকা। সংস্থার নিজস্ব অর্থায়ন ৭ কোটি ৯০ লাখ টাকা।

তিনি বলেন, রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ভৌত সুরক্ষা ব্যবস্থা প্রকল্পটি সম্পূর্ণ নতুন। এতে ব্যয় হবে ৩ হাজার ৪৪৯ কোটি ৫ লাখ টাকা, চলতি বছরের অক্টোবরে কাজ শুরু করে ২০২৩ সালের মার্চের মধ্যে শেষ করা হবে।

একনেক সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তাফা কামাল, পরিকল্পনা মন্ত্রী এম.এ. মান্নান, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক, তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশিসহ অন্যান্যরা।

অনুমোদিত বাকি ৫ প্রকল্পহুলো হলো- সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের তিনটি প্রকল্প 'যশোর (রাজারহাট)-মনিরামপুর-কেশবপুর-চুকনগর আঞ্চলিক মহাসড়ক (আর-৭৭৫) উন্নয়ন প্রকল্প, ফেনী-সোনাগাজী-মুহুরী সড়কের ৩০ কি.মি. এ ৩৯১.৩৪ মিটার দীর্ঘ মুহুরী সেতু প্রকল্প এবং বক্তারমুন্সী-কাজিরহাট-দাগনভূঁঞা সড়কের ১৩তম কিলোমিটারে ৫০.১২ মিটার দীর্ঘ ফাজিলাহাট সেতু নির্মাণ প্রকল্প, কক্সবাজার জেলার একতাবাজার হতে বানৌজা শেখ হাসিনা ঘাঁটি পর্যন্ত সড়ক (জেড-১১২৫) উন্নয়ন প্রকল্প, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের 'আগারগাঁওস্থ শেরে বাংলা নগরে পর্যটন ভবন নির্মাণ (১ম সংশোধিত) প্রকল্প, পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের 'সিলেট জেলার সিলেট সদর ও বিশ্বনাথ উপজেলায় দশগ্রাম, মাহতাবপুর ও রাজাপুর পরগণার বাজার এলাকা সুরমা নদীর উভয় তীরের ভাঙন রক্ষা প্রকল্প।