ঢামেকে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত যুদ্ধাপরাধী সুবহানের মৃত্যু

যুদ্ধাপরাধের দায়ে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াতে ইসলামি নেতা আব্দুস সুবাহান (৮০) ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

শুক্রবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বেলা দেড়টার দিকে তার মৃত্যু হয় বলে নিশ্চিত করেন ঢামেক হাসপাতালের ডিউটিরত সহকারী প্রধান কারারক্ষী মো. শেখ কামাল হোসেন।

তিনি বলেন, আব্দুস সুবাহান মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার ফাঁসির আসামি ছিলেন। তার বাড়ি পাবনা জেলায়।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, যুদ্ধাপরাধী সুবহান বার্ধক্যজনিত নানা রোগে আক্রান্ত ভূগছিলেন। পরে গত ২৪ জানুয়ারি তাকে ঢামেক হাসপাতালের নতুন ভবনের মেডিসিন ওয়ার্ডে ভর্তি করে কারা কর্তৃপক্ষ।

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া জানান, তার মৃতদেহ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

উল্লেখ্য, তিনি পাবনা-৫ আসন থেকে পাঁচবার সংসদ সদস্য (এমপি) নির্বাচিত হন। সবশেষ ২০০১ সালের নির্বাচনে চারদলীয় জোটের মনোনয়ন নিয়ে এমপি নির্বাচিত হন। জামায়াতের নায়েবে আমির মাওলানা আবদুস সুবহান পাকিস্তান আমলে ছিলেন পাবনা জেলা জামায়াতের আমির ও কেন্দ্রীয় শুরা সদস্য। তিনি পাবনা আলিয়া মাদ্রাসার সাবেক হেড মাওলানা ছিলেন। ২০১৫ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি জামায়াতের এই প্রভাবশালী নেতাকে যুদ্ধাপরাধের দায়ে প্রাণদণ্ড দেন মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচারে গঠিত আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। এরপর থেকে কাশিমপুর কারাগারে বন্দি ছিলেন তিনি।