খুচরা বাজারে এলপিজির মূল্য অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ জানিয়াছেন, মূল্য সংযোজন কর (মুসক) আইন কার্যকর হওয়াতে সরাসরি পর্যায়ে এলপি গ্যাসে (এলপিজি) ভ্যাট খাতে খরচ বৃদ্ধি পেলেও জনস্বার্থ বিবেচনায় খুচরা পর্যায়ে বিক্রয় মূল্য অপরিবর্তিত রেখে মূল্য কাঠামো সংশোধন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদের অধিবেশনে মন্ত্রীদের জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে আওয়ামী লীগের সংরক্ষিত মহিলা আসনের সদস্য সৈয়দা রুবিনা আক্তারের এক প্রশ্নে লিখিত উত্তরে তিনি এ কথা জানান।

এ সময় প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, বর্তমানে সরকারি খাতে উৎপাদিত ১২ দশমিক ৫০ কেজি ওজনের এক সিলিন্ডার গ্যাসের (এলপিজি) ভোক্তা পর্যায়ে খুচরা মূল্য ৭০০ টাকা মাত্র। বেসরকরি খাতে বোতলজাত প্রতিটি ১২ কেজি ওজনের এক সিলিন্ডার গ্যাসের খুচরা পর্যায়ে ৯৫০ টাকা হতে ১০০০ টাকা পর্যন্ত মুল্যে বিক্রির তথ্য পাওয়া গেছে।

মুসক আইন কার্যকর হওয়া সম্পর্কে তিনি বলেন, চলতি অর্থবছরে নতুন মুসক আইন কার্যকর হওয়াতে সরাসরি পর্যায়ে এলপিজি ভ্যাট খাতে খরচ বাড়লেও জনস্বার্থ বিবেচনায় খুচরা পর্যায়ে বিক্রয় মূল্য অপরিবর্তিত রেখে মূল্য কাঠামো সংশোধন করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত সরকারিখাতে বিপণনকৃত গ্যাসের মূল্য আন্তর্জাতিক বাজার মূল্যের সঙ্গে সম্পৃক্ত নয়। তবে বেসরকারি খাতে আমদানি ও বিপণন করা এলপিজির মূল্য আন্তর্জাতিক বাজার মূল্যের সঙ্গে হ্রাস-বৃদ্ধি হয়।