করোনা ঠেকাতে তিন ধাপে প্রস্তুতি নিয়েছে সরকার

বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে। এমতাবস্থায় বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস ঠেকাতে তিন ধরণের পরিকল্পনা হাতে নিয়ে খসড়া নীতিমালা তৈরি করেছে সরকার।

বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও আইইডিসিআরের সমন্বয়ে এই প্রস্তুতির খসড়া তৈরি করেছে বলে জানিয়েছেন আইইডিসিআরের পরিচালক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

করোনা ভাইরাস নিয়ে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, করোনা ভাইরাসের পূর্ব প্রস্তুতি নিয়ে অনেক আগে থেকেই আমরা কাজ করছিলাম। যদি রোগী পাওয়া যায় তখন কী করা হবে, সেসব প্রস্তুতির খসড়া আমরা তৈরি করেছি। সেটা চূড়ান্ত করার প্রক্রিয়া চলছে।

তিন ধাপে পরিকল্পনার বিষয়ে ডা. ফ্লোরা বলেন, একটা হচ্ছে অ্যালার্ট লেভেল- যখন কোন রোগী নেই, এখন সেই কর্মসূচি আমরা পালন করছি। যখন বিদেশ থেকে রোগী পাওয়া যাবে, অল্প সংখ্যায়- সেটা আরেকটা লেভেল। আর শেষটা হল যদি অনেক রোগী হয়ে যায়, সেই লেভেল।

তিনি জানান, প্রতিরোধের প্রস্তুতিতে কোনো ঘাটতি রাখা হচ্ছে না। সম্মিলিতভাবে আমরা যে কার্যক্রম চালাচ্ছি, তাতে আশঙ্কা করি না যে এ রোগটা দ্রুত ছড়িয়ে পড়বে।

ডা. ফ্লোরা বলেন, আর যদি ১০০ বা ২০০ জন আক্রান্ত হন, সেক্ষেত্রে পরীক্ষার প্রয়োজন নেই বলে নির্দেশনা দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। প্রাথমিক উপসর্গ দেখা দিলে ধরে নিতে হবে যে, করোনা ভাইরাসের রোগী তারা। সেই অনুযায়ী চিকিৎসা দিতে হবে।