রাজশাহী বিএনপির ৪ শীর্ষ নেতার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার ইঙ্গিতপূর্ণ বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে দায়ের হওয়া রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনুসহ রাজশাহী বিএনপির চার শীর্ষ নেতার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার তদন্ত প্রতিবেদন গ্রহণ করে বুধবার রাজশাহী মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সাইফুল ইসলাম এ পরোয়ানা জারি করেন।

অন্য আসামিরা হলেন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, রাজশাহী সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র ও মহানগর বিএনপির সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল ও সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলন।

আজ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম উল্লেখিত আসামিদের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেন আদালতে।  এতে তিনি উল্লেখ করেন, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে রাজশাহীতে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশে উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে রাষ্ট্রদ্রোহের অপরাধ করেছেন। তার প্রতিবেদন গ্রহণ করে আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি করেন।

এর আগে ১৬ মার্চ এই আসামদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা গ্রহণ করেন আদালত। মামলায় বলা হয়, গত ২ মার্চ রাজশাহী মহানগর বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে মিনুসহ বিএনপির এ চার নেতা পূর্বপরিকল্পিতভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা ও নির্বাচিত সরকার উৎখাতের অসৎ উদ্দেশ্যে প্রকাশ্যে হুমকি দিয়েছেন। এতে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অপরাধ করেছেন তারা। তাই মামলাটি করা হলো।