বিজিবিকে আন্তর্জাতিক সীমান্ত বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশকে (বিজিবি) আন্তর্জাতিক সীমান্ত বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

শনিবার (১৭ জুলাই) সকালে চট্টগ্রামের বায়তুল ইজ্জতে বিজিবির ট্রেনিং ইনস্টিটিউট প্যারেড গ্রাউন্ডে ৯৬তম রিক্রুটদের কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এই কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ৯৬তম রিক্রুট ব্যাচের নবীন সৈনিকদের প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও অভিবাদন গ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন ও বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. সাফিনুল ইসলাম বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, সীমান্তে তোমরা চোরাচালান বন্ধ করবে। তার এই বক্তব্যে অনুপ্রাণিত হয়ে সীমান্তে দায়িত্ব পালন করতে হবে।

আধুনিক সীমান্ত বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলার কাজ চলছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ত্রিমাত্রিক বাহিনী হিসেবে বিজিবিকে গড়ে তোলা হয়েছে।

মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে নারীদের অবিস্মরণীয় অবদানের কথা স্মরণ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নবীন নারী সৈনিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আজ নারীরা বিভিন্ন অঙ্গনে যথাযথ যোগ্যতা ও কর্মদক্ষতার স্বাক্ষর রাখছেন। এরই ধারাবাহিকতায় আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, তোমরা বিজিবি’র সার্বিক কর্মকাণ্ড পরিচালনায় আরও গতিশীল ভূমিকা রাখাসহ বাহিনীর সুনাম ও সুখ্যাতি বৃদ্ধিতে সততা, নিষ্ঠা ও দক্ষতার সঙ্গে নিরলসভাবে কাজ করবে।

তিনি বিজিবি’র নবীন সৈনিকদের প্রদর্শিত কুচকাওয়াজের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেন এবং নবীন সৈনিকদের নতুন জীবনে পদার্পণের শুভলগ্নে তাদের স্বাগত জানান।

বিজিবি’র প্রশিক্ষণ কর্মকাণ্ডের কলেবর বৃদ্ধির বিষয়টি বিবেচনায় রেখে চুয়াডাঙ্গায় আরেকটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র নির্মাণের কার্যক্রম চলমান রয়েছে বলেও জানান তিনি।

সবশেষে বিজিবি’র সুসজ্জিত নবীন সৈনিকদের চৌকস দল কর্তৃক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে আবারও সশস্ত্র সালাম প্রদানের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।