এরশাদকে খুবই স্নেহ করতেন বঙ্গবন্ধু: জিএম কাদের

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় পার্টির প্রয়াত চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ খুব স্নেহ করতেন বলে দাবি করেছেন পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের।


রবিবার (১৫ আগস্ট) দুপুরে বনানী কার্যালয়ে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে এক অলোচনা সভায় জিএম কাদের এ কথা বলেন।


তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে  হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ অত্যন্ত শ্রদ্ধা করতেন। বঙ্গবন্ধুও হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে খুব স্নেহ করতেন। ১৯৭৫ সালের পর হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের আগ পর্যন্ত ৫ জন রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশের রাষ্ট্র ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত ছিলেন। কিন্তু  এরশাদই দেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি হিসেবে বঙ্গবন্ধুর মাজার জিয়ারত করেছিলেন।’


গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেন, ‘জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমান কোনও একটি দলের নয়, তিনি বাঙালি জাতির সম্পদ।’


জিএম কাদের বলেন, ‘জীবনের একটি বিশাল অংশ কারাবরণ করেছেন বঙ্গবন্ধু, ফাঁসির মুখেও গিয়েছেন একাধিকবার। কিন্তু দেশ ও মানুষের অধিকারের প্রশ্নে কখনোই আপস করেননি বঙ্গবন্ধু। বঙ্গবন্ধু ছিলেন বাঙালি জাতির এক অবিসংবাদিত নেতা।’


জাতীয় পার্টি মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, ‘হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অনেক ভালোবাসতেন। তাই ১৯৭৪ সালে উচ্চতর প্রশিক্ষণের জন্য তাকে ভারতে পাঠান বঙ্গবন্ধু।’


দলের কো-চেয়ারম্যান এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার বলেন, ‘হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ সবসময় জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানকে পিতার মতো শ্রদ্ধা করতেন। এরশাদ দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে কখনোই জাতির জনকের সমালোচনা করে কথা বলেননি। তিনি সব সময় মুক্তিযোদ্ধাদের অত্যান্ত শ্রদ্ধার চোখে দেখতেন।’


তিনি বলেন, ‘১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট এরশাদ দেশে থাকলে হয়তো খুনিরা এমন নির্মম, নৃশংস ও নারকীয় ঘটনা ঘটাতে পারতো না।’