রাষ্ট্রপতি নির্বাচন ১৯ ফেব্রুয়ারি

আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশের ২২তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ভোটগ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করে তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।


প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা বুধবার (২৫ জানুয়ারি) নির্বাচন ভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচনের এ তফসিল ঘোষণা করেন।


তফসিল অনুযায়ী, নির্বাচনে রাষ্ট্রপতি পদে মনোয়নপত্র দাখিল করতে হবে ১২ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত , যাচাই-বাছাই ১৩ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টা থেকে শেষ না হওয়া পর্যন্ত এবং প্রার্থিতা প্রত্যাহার ১ ফেব্রুয়ারি বিকেল ৪টা পর্যন্ত। ভোটগ্রহণ হবে জাতীয় সংসদ ভবনে দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত।
বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ২০১৮ সালের ২৪ এপ্রিল দেশের ২২তম রাষ্ট্রপতি হিসেবে দায়িত্বগ্রহণ করেন।


সংবিধান অনুযায়ী, মেয়াদ অবসানের কারণে রাষ্ট্রপতির পদ শূন্য হলে মেয়াদপূর্তির তারিখের আগের নব্বই থেকে ষাট দিনের মধ্যে নির্বাচন করার বিধান রয়েছে। এক্ষেত্রে আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারির মধ্যে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ভোটগ্রহণের বাধ্যবাধকতা ছিল নির্বাচন কমিশনের।


আইন অনুযায়ী, এক ব্যক্তি সর্বোচ্চ দুই মেয়াদে রাষ্ট্রপতি পদে দায়িত্ব পালন করতে পারবেন। মো. আবদুল হামিদ দুই মেয়াদে দায়িত্ব পালন করায় তৃতীয়বার নির্বাচিত হওয়ার সুযোগ নেই।


রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন সংসদ সদস্যদের ভোটে। সংসদে আওয়ামী লীগের নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা থাকায় তাদের প্রার্থীর রাষ্ট্রপতি হওয়াটা নিশ্চিত।


সবশেষ রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয় ২০১৮ সালের ২৫ জানুয়ারি। সে সময় ১৮ ফেব্রুয়ারি ভোটগ্রহণের দিন নির্ধারিত থাকলেও প্রার্থী একজন থাকায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ৬ ফেব্রুয়ারি দ্বিতীয় দফায় রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন মো. আবদুল হামিদ। আগামী ২৩ এপ্রিল শেষ হবে তার মেয়াদ। এবার ২৩ জানুয়ারি থেকে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ক্ষণগণনা শুরু হয়েছে। আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারির মধ্যে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন করতে হবে।