সাকিব বনাম অন্য অলরাউন্ডাররা, সেরা কে?

এবারের বিশ্বকাপটা শুধুই সাকিবময় হতে যাচ্ছে। মাত্র ৪ ম্যাচ খেলেই বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার করে ফেলেছেন ৩৮৪ রান। নামের পাশে আছে পাঁচটি উইকেট। এমন অলরাউন্ড নৈপূণ্যের পর শুরু হয়েছে একটি বিতর্ক। সর্বকালের বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার কে?

সর্বকালের সেরা অলরাউন্ডার কে এটা নিয়ে মতভেদ রয়েছে। কেউ গ্যারি সোবার্সকে আবার কেউ ইমরান খানকে সেরা অলরাউন্ডার মানেন। অনেকের মতে আবার জ্যাক ক্যালিস সেরা অলরাউন্ডার। ইয়ান বোথাম ও কপিল দেবের নামও শোনা যায় অনেকের মুখে। এখন আবার সাকিব আল হাসান।

দেখে নেওয়া যাক এই তারকাদের ক্যারিয়ার। তা দেখেই বিবেচনা করে নিন সর্বকালের সেরা অলরাউন্ডার কে।

রিচার্ড হ্যাডলি: নিউজিল্যান্ডের বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান হিসাবে খেললেও বল করতেন ডান হাতে। ৮৬টি টেস্টে ৪৩১ উইকেট নিয়েছেন। সঙ্গে ৩১২৪ রান। সেরা স্কোর অপরাজিত ১৫১ রান। ওডিআইতে ১১৫ ম্যাচে রয়েছে ১৭৫১ রান এবং ১৫৮ উইকেট।

ইয়ান বোথাম: ১০২ টেস্টে ইংল্যান্ডের এই তারকা করেছেন ৫২০০ রান। সাথে আছে ৩৮৩ উইকেট। ১১৬টি ওডিআইতে রয়েছে ২১১৩ রানের সঙ্গে ১৪৫ উইকেট।

কপিল দেব: ১৩১ টেস্টে ৫২৪৮ রান ছাড়াও নিয়েছেন ৪৩৪ উইকেট। ২২৫টি ওডিআই-তে ৩৭৮৩ রান ছাড়াও তুলে নিয়েছেন ২৫৩ উইকেট। ঝোড়ো ব্যাটিংয়ের সঙ্গে আউটসুইংয়ের জন্য নাম কুড়িয়েছিলেন কপিল।

ইমরান খান: ক্যাপ্টেন হিসাবে পাকিস্তানকে বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন করান ইমরান। ফাস্ট বোলার হিসাবে এই অক্সফোর্ড স্নাতকের ঝুলিতে রয়েছে ১৮২ ওডিআই উইকেট (১৭৫ ম্যাচে)। ব্যাটে অবদান ৩৭০৯ রান। আর ৮৮ টেস্টে করেছেন ৩৮০৭ রান। সঙ্গে নিয়েছেন ৩৬২ উইকেট।

জ্যাক ক্যালিস: এই দক্ষিণ আপ্রিকান ১৬৬ টেস্টে ১৩২৮৯ রানের পাহাড়ের সঙ্গে তাঁর ঝুলিতে রয়েছে ২৯২ উইকেট। ৩২৮ ওডিআই খেলে তাঁর ফাস্ট মিডিয়াম বোলিংয়ে তুলে নিয়েছেন ২৭৩ উইকেট। সঙ্গে করেছেন ১১৫৭৯ রান। ২৫টি টি-২০তে ৬৬৬ রান ছাড়াও রয়েছে ১২ উইকেট।

গ্যারি সোবার্স: ফাস্ট মিডিয়াম-অফস্পিন-লেগব্রেক, বোলিংয়ের সব নমুনাই দেখিয়েছেন এই বাঁ-হাতি। ৯৩ টেস্টে ২৩৫ উইকেট ছাড়া রয়েছে ৮০৩২ রান। তবে ওয়ানডে খেলার সুযোগ হয়নি তার।

সাকিব আল হাসান: ২০২ ওডিআইতে করেছেন ৬১০১ রান। বাঁ-হাতি অর্থডক্স বোলিংয়ে তুলে নিয়েছেন ২৫৪ উইকেট। ৫৫ টেস্টে ৩৮০৭ রানের সঙ্গে রয়েছে ২০৫ উইকেট। টি-২০তে করেছেন ১৪৭১ রান (৭২ ম্যাচে)। এবং রয়েছে ৮৮ উইকেট।