‘ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড ম্যাচ পাতানো ছিল’

গতকাল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডের হারে যতটা না কষ্ট পেয়েছে কিউই সমর্থকরা তার চেয়েও বেশি শোকাতুর পাকিস্তান দলের ক্রিকেটভক্তরা।

কারণ সে ম্যাচে হারলেও নিউজিল্যান্ডের সেমিফাইনাল প্রায় নিশ্চিত ছিল। কিন্তু ম্যাচটি জিতে নিয়ে পয়েন্ট টেবিলে ৩য় অবস্থানে চলে সেমিফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করল স্বাগতিকরা।

এখন শেষ চারে উঠতে হলে আগামী ৫ জুলাই বাংলাদেশের বিপক্ষে অন্তত ৩১৬ রানের ব্যবধানে জিততে হবে পাকিস্তানকে। যা এক প্রকার অসম্ভবই।এদিকে গতকালের ইংল্যান্ড বনাম নিউজিল্যান্ড ম্যাচটিকে পাতানো বলে ভাবছেন পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার রশিদ লতিফ।

ইতিমধ্যে টেলিভিশনের এক টকশো তে এসে বিস্ফোরক অভিযোগটি করলেন তিনি। উর্দু ভাষার ওই টকশোতে পাকিস্তানের এই সাবেক পাক উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান অভিযোগ করেন, গতকাল চেস্টার-লি-স্ট্রিটে অনুষ্ঠিত ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড ম্যাচে উভয় দলই ফিক্সিং করেছে।

টকশোতে আরও উপস্থিত সাবেক দুই পাক ক্রিকেটার মহসিন খান ও শোয়েব আখতারের সামনেই এমন অভিযোগ করেন তিনি।

এমন অভিযোগের স্বপক্ষে রশিদ লতিফ যুক্তি দেখান, ‘ম্যাচে দুর্দান্ত শুরুর পরও ইংল্যান্ডের স্কোর যাতে সাড়ে তিনশ’ না পার হয় সেদিকে লক্ষ্য রেখেছিল ব্যাটসম্যানরা। সেজন্য সুযোগ থাকার পরও শেষ দিকে ইংল্যান্ড ইচ্ছে করে ধীরে ব্যাট করেছে। যাতে নেট রানরেটে নিউজিল্যান্ড সমস্যায় না পড়ে। সেই পরিকল্পনা নিয়েই ৩০৫ রানে গিয়ে থামে ইয়ন মরগানরা।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘চার উইকেট হারানোর নিউজিল্যান্ড ব্যাটসম্যানকে পর জো রুট ও আদিল রশিদকে দিয়ে বল করিয়েছে ইংল্যান্ড। যাতে করে কিউইরা কম ব্যবধানে হারে।’

তিনি বলেন, ‘কিউই ব্যাটসম্যান হেনরি নিকোলসকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে আউট করা হয়। অথচ পরে দেখা যায় বলটি স্ট্যাম্পের অনেক উঁচু দিয়ে যাচ্ছিল।’

কিন্তু এই পাক উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানের এসব যুক্তি কিছুটা হলেও ফিকে হয়ে গেছে। বুধবার ইংল্যান্ডের দেয়া ৩০৬ রানের টার্গেটে চরম ব্যাটিং ব্যর্থতার পরিচয় দেয় কিউইরা। ১৮৬ রানেই গুটিয়ে যায় কেন উইলিয়ামসনরা।

ফলাফল ১১৯ রানের বিশাল ব্যবধানে হারে নিউজিল্যান্ড। এই জয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে ইংল্যান্ড।