পাকিস্তানে হচ্ছেটা কী?

ভারত দলে গ্রেগ-গাঙ্গুলি দ্বৈরথের কথা মনে আছে? তৎকালীন কোচ ও অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলির মধ্যে বেশ সুসম্পর্ক ছিল বলেই সবাই জানতো। তবে হঠাৎ করেই বোর্ডের কাছে নালিশ দেন চ্যাপেল। এ নিয়ে দুইজনের দ্বন্দ্বে শেষ পর্যন্ত চাকরি হারান চ্যাপেল। এর বছরখানেক পর সৌরভকেও হারাতে হয় অধিনায়কত্ব।

এবার সে ছায়া পড়েছে পাকিস্তানের ক্রিকেটে। বিশ্বকাপ শেষেই অধিনায়কের পদ থেকে সরফরাজ আহমেদকে সরানোর দাবি তুলেন সাবেক পাক ক্রিকেটাররা। কেউ কেউ তো সরফরাজকে অশালীন ভাষায় আক্রমণও করেন। যদিও বিশ্বকাপে ৫ জয় আর ১ ড্রতে পঞ্চম অবস্থানে থেকে মেষ করে পাকিস্তান।

এবার সাবেকদের সাথে কণ্ঠ মিলিয়েছেন কোচ মিকি আর্থার। সরফরাজকে তিনি পদ থেকে সরানোর দাবি তুলেছেন।

পিসিবির একটি বিশেষ কমিটি পাকিস্তানের গত তিন বছরের পারফরম্যান্স নিয়ে ময়নাতদন্ত করছে। এর মধ্যে রয়েছে বিশ্বকাপে পাকিস্তানের পারফরম্যান্সও। পিসিবির একটি সূত্র বলছে, সীমিত ওভারের ক্রিকেটে শাদাব খানকে নেতা করার পরামর্শ দিয়েছেন আর্থার। অন্য দিকে টেস্ট ক্রিকেটে বাবর আজমকে ক্যাপ্টেন করার প্রস্তাব দিয়েছেন পাক কোচ। সরফরাজের নেতৃত্ব নিয়েও আর্থার নেতিবাচক মন্তব্য করেছেন কমিটির কাছে। কমিটির কাছে আর্থার আবেদন করেছেন, ভাল ফলাফল করার জন্য আরও দু’বছর তাঁকে রেখে দেওয়া হোক।

তবে আর্থার যে ব্যাখ্যা দিয়েছেন, তার সবটার সঙ্গে সহমত পোষণ করছেন না কমিটির সদস্যরা। চিন্তা হচ্ছে আর্থারকে সরিয়ে দেওয়ার।