এল ক্ল্যাসিকো নিয়ে মহা দুশ্চিন্তায় রিয়াল

আন্তর্জাতিক বিরতির মধ্যে যেসব খেলোয়াড়কে পাওয়া যাচ্ছে তাদের নিয়েই অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছেন জিনেদিন জিদান। কারণ বিরতির পরপরই এক সপ্তাহের মধ্যে তিনটি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে মাঠে নামতে হবে তার দলকে। ওই তিন ম্যাচের মধ্যে আছে বার্সেলোনার বিপক্ষে ‘এল ক্ল্যাসিকো’ও। কিন্তু ফুটবল আভিজাত্যের মহারণের আগে ইনজুরির মিছিল লম্বা হওয়ায় রীতিমতো কাতর রিয়াল মাদ্রিদ।

বিরতির পর ১৯ অক্টোবর লা লিগার ম্যাচে মায়োর্কার বিপক্ষে প্রথমে মাঠে নামবে রিয়াল। তিনদিন পর অর্থাৎ, ২২ অক্টোবর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচে লস ব্লাঙ্কোসদের প্রতিপক্ষ তুরস্কের ক্লাব গ্যালাতাসারে। তার তিনদিন পর (২৬ অক্টোবর) বার্সেলোনার বিপক্ষে লা লিগায় মৌসুমের প্রথম এল ক্ল্যাসিকো।

আন্তর্জাতিক ম্যাচের মধ্যদিয়ে রিয়ালের জন্য সুখবরই ভাসছিল। ইনজুরি থেকে বেলজিয়াম দলে ফিরেছিলেন থিবো কোর্তোয়া। কয়েক সপ্তাহ আগেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচে ক্লাব ব্রুগের বিপক্ষে ইনজুরিতে পড়েছিলেন চেলসির সাবেক এ গোলকিপার। কিন্তু মাঠে নেমে আবার ছোট ইনজুরিতে পড়েছেন কোর্তোয়া। তবে জিদানকে সবচেয়ে বেশি চিন্তায় ফেলেছে লুকা মদ্রিচ ও গ্যারেথ বেলের ইনজুরি।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই ইনজুরির সঙ্গে লড়তে হচ্ছে রিয়ালের পুরো দলকে। এরমধ্যে অবশ্য স্বস্তির খবর কোর্তোয়া এবং মার্সেলোর ফিটনেস ফিরে পাওয়া। গত সপ্তাহে অনুশীলনের সময় ইনজুরিতে পড়েন মার্সেলো। তবে স্প্যানিশ মিডিয়া জানাচ্ছে, মায়োর্কার বিপক্ষে পুরো সুস্থ হয়ে ফিরছেন ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গার।

একই সময়ে বেলজিয়ামের হয়ে সবশেষ দুই ম্যাচে খেলেছেন কোর্তোয়া। ব্রুগের বিপক্ষে ইনজুরিতে পড়ার পর গ্রানাডার বিপক্ষে ম্যাচ মিস করেছিলেন তিনি। জাতীয় দলের হয়ে শেষ ম্যাচে ছোট ইনজুরিতে পড়লেও এল ক্ল্যাসিকোর আগে পুরো সুস্থ হয়ে উঠবেন বলেই রিয়ালের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

গোলবার এবং উইংয়ে কোর্তোয়া-মার্সেলো আশা জাগালেও জিদানকে বড় চিন্তায় রাখছেন বেল, মদ্রিচ, ফারল্যান্ড মেন্ডি এবং টনি ক্রুজ। চারজনই আগামী সপ্তাহের সব ম্যাচে অনিশ্চিত।

গত ১১ অক্টোবর থেকে মাঠের বাইরে ফরাসি ডিফেন্ডার মেন্ডি। এখন পর্যন্ত পূর্ণ অনুশীলনে নামতে পারেননি। গত দুদিন বল নিয়ে একটু দৌড়াদৌড়ি করলেও তাকে নিয়ে আশা খুবই কম। মায়োর্কার বিপক্ষে তো অনিশ্চিতই, পরের দুই ম্যাচেও তাকে পাওয়া নিয়ে ব্যাপক অনিশ্চয়তা রয়েছে।

ইউরো বাছাইপর্বে মাঠে নেমে ইনজুরিতে পড়েছেন মদ্রিচ, বেল ও ক্রুজ। ওয়েলস-ক্রোয়েশিয়া যখন মুখোমুখি হয়েছিল সেই ম্যাচেই আঘাত পান রিয়ালের দুই সতীর্থ মদ্রিচ-বেল। ওয়েলস কোচ রায়ান গিগস বেলের ইনজুরিকে ছোট উল্লেখ করলেও মদ্রিচেরটা বেশ গুরুতর বলে জানিয়েছে ক্রোয়েশিয়া ফুটবল ফেডারেশন ও রিয়াল মাদ্রিদ। বেল খুড়িয়ে খুড়িয়ে ম্যাচ শেষ করলেও মাঠের বাইরে চলে যেতে হয় মদ্রিচকে। আগামী এক সপ্তাহ দুজনই পর্যবেক্ষণে থাকবেন।

সবচেয়ে বেশি অনিশ্চয়তা রয়েছে টনি ক্রুজকে নিয়ে। গ্রানাডার বিপক্ষে কুঁচকির ইনজুরির কারণে মাঠ ছাড়েন তিনি। পরে জার্মানির হয়ে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে খেলতে পারেননি। ইনজুরি এতোটাই জটিল যে, এখন পর্যন্ত অনুশীলনেও নামতে পারেননি।

ইনজুরির তালিকায় আছেন হামেস রদ্রিগেজও। যার ফলে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে কলম্বিয়া দলের সঙ্গে সফরে নেই তিনি। লম্বা সময় ধরে ইনজুরিতে আছেন নাচো এবং মার্কো অ্যাসেনসিও। হাঁটুর ইনজুরির কারণে আরও বেশ কয়েক সপ্তাহ সাইডবেঞ্চে থাকতে হবে নাচোকে। আর আগামী ফেব্রুয়ারির আগে মাঠে ফেরার কোনো সম্ভাবনা নেই প্রাক-মৌসুমে ইনজুরিতে পড়া অ্যাসেনসিওর।