রেকর্ড গড়ে ভারতের সিরিজ জয়

প্রথম টেস্টে ২০৩ রানে জয়। দ্বিতীয় টেস্টে ইনিংস ও ১৩৭ রানে জয়। তৃতীয় টেস্টে ইনিংস ও ২০২ রানে জয়। বিশাখাপত্তনম, পুণে ও রাঁচী। টানা তিন টেস্টে বিরাট কোহালির দল রীতিমতো দুরমুশ করে হারাল দক্ষিণ আফ্রিকাকে। ৩-০ জয়ের সঙ্গে গড়ল নানা রেকর্ডও।

আম্পায়াররা চেষ্টা করেছিলেন তৃতীয় দিনের শেষেই রাঁচি টেস্টের সঙ্গে সঙ্গে এবারের মতো গান্ধী-ম্যান্ডেলা সিরিজের অধ্যায় শেষ করে দিতে। তবে শেষ বেলায় এলগারের কনকাশন পরিবর্ত থিউনিস ডি’ব্রুইন ও এনরিচ নর্ৎজে ভারতীয় স্পিনারদের ফাঁদে পা না-দেওয়ায় দিনের শেষ বেলায় বাড়তি কয়েক ওভার যোগ করেও কোনও লাভ হয়নি।

তৃতীয় দিনে নিষ্পত্তি না-হলেও চতুর্থ দিনের সকালে রাঁচি টেস্টের পাট চুকিয়ে দিতে ভারতীয় বোলাররা সময় নেন মাত্র দু’ওভার। ৮ উইকেটে ১৩২ রানের পর থেকে খেলা শুরু করে দক্ষিণ আফ্রিকার দ্বিতীয় ইনিংস গুটিয়ে যায় বাড়তি ১ রান যোগ করে অর্থাৎ ১৩৩ রানে।

এ নিয়ে ঘরের মাঠে টানা ১১ টেস্ট সিরিজ জিতলেন কোহালিরা। যা শুরু হয়েছিল ২০১৩ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে জয়ের মাধ্যমে। সেই সিরিজে অস্ট্রেলিয়াকে ৪-০ হারিয়েছিল মহেন্দ্র সিংহ ধোনির দল।

ঘরের মাঠে এই সময়ের মধ্যে ভারত খেলেছে ৩৩ টেস্ট। তার মধ্যে হেরেছে একটিতে। ২০১৭ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে পুণেয়। সেই টেস্ট স্টিভ স্মিথের অসাধারণ ব্যাটিংয়ের জন্য চিহ্নিত। আইসিসি সেই টেস্টের বাইশ গজকে ‘পুওর’ রেটিং দিয়েছিল।

২০১৩ সাল থেকে ধরলে ঘরের মাঠে ভারত জিতেছে ২৬ টেস্ট। হেরেছ মাত্র একটিতে। যা সেরা। এই সময়ে অস্ট্রেলিয়া ঘরের মাঠে জিতেছে ২৩ টেস্ট। হেরেছে চারটিতে। এই সময়ে বিশ্বের বাকি সব দল ঘরের মাঠে অন্তত চার টেস্টে হেরেছে। একমাত্র কোহালিরা হেরেছেন একটি মাত্র টেস্টে।

এর আগে ভারতের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে দক্ষিণ আফ্রিকা কোনও বার ফলো অন করেনি। যা ঘটল সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে। পুণে টেস্টের পর রাঁচীতেও ফের প্রোটিয়াদের ফলো অন করিয়েছে ভারত। টানা দ্বিতীয় টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকা ফলো অন করেছে এই সিরিজে।