ফিলিস্তিনিদের অনুরোধ রাখবেন কী মেসি ?

উরুগুয়ের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ খেলতে ইসরায়েল সফরে যাবে আর্জেন্টিনা। ইসরায়েলের রাজধানী তেল আবিবে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ম্যাচটি। কিন্তু নিরাপত্তাহীনতার কারণে এই ম্যাচটি বাতিল কিংবা অন্য কোনো ভেন্যুতে স্থানান্তরিত হতে পারে বলে জানিয়েছে স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ‘মার্কা’।

এদিকে, নৈতিকতার কথা মাথায় রেখে ম্যাচটি বর্জনের জন্য ফুটবলের দুই মহাতারকা লিওনেল মেসি ও লুইস সুয়ারেসের প্রতি আহবান জানিয়েছেন অগণিত ফিলিস্তিনি ফুটবলভক্ত ও বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থা।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ‘মর্নিং স্টার’কে ‘প্যালেস্টিনিয়ান ক্যাম্পেইন ফর দ্য অ্যাকাডেমিক অ্যান্ড কালচারাল বয়কট অব ইসলাম’- (পিএসিবিআই) এর একজন কর্মী আলিয়া মালাক বলেন, যখন ইসরায়েলি সরকার ফিলিস্তিনিদের ওপর পাশবিক অত্যাচার চালিয়ে যাচ্ছে, এমন সময় ম্যাচটি মাঠে গড়ালে তা সুন্দর খেলাটিকে নোংরা করে তুলতে পারে।

মেসি ও সুয়ারেসদের প্রতি ম্যাচটি বয়কটের আহবান জানিয়ে মালাক বলেন, আর্জেন্টিনা ও উরুগুয়ের খেলোয়াড় বিশেষ করে লিওনেল মেসি ও লুইস সুয়ারেসকে অবশ্যই তাদের প্রভাব ব্যবহার করে অর্থের বিনিময়ে ইসরায়েলে ম্যাচ খেলে নিজ নিজ দলকে ইতিহাসে ঘৃণার পাত্র হওয়া থেকে রক্ষা করতে হবে।

চলতি বছরের ১৮ নভেম্বর তেল আবিবের নিউ ব্লুমফিল্ড স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হওয়ার কথা আর্জেন্টিনা ও উরুগুয়ের। এই ম্যাচ দিয়েই তিন মাসের নিষেধাজ্ঞা শেষে আর্জেন্টিনার জার্সিতে ফিরবেন লিওনেল মেসি। কিন্তু ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের মধ্যকার চলমান সংঘর্ষের কারণে ম্যাচ আয়োজন নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

এই ম্যাচের তারিখ নির্ধারণ করা হলেও সূচিতে এখনো সময় নির্ধারণ হয়নি। এমনকি ম্যাচটি কোথায় হবে সেটাও বলা হয়নি। এখন দেখা যাক ফিলিস্তিনিদের অনুরোধ রাখে কিনা মেসি-সুয়ারেজরা।