মেসির শেষ মুহূর্তের গোলে হার এড়ালো আর্জেন্টিনা

এডিনসন কাভানি আর লুইস সুয়ারেজ মিলে দুইবার উরুগুয়েকে এগিয়ে নিয়েছিলেন। দুইবারই ফেরত এসেছে আর্জেন্টিনা। একবার লিওনেল মেসির ফ্রি-কিক থেকে মাথা ছুঁয়ে দলকে সমতায় ফিরিয়েছিলেন সার্জিও আগুয়েরো। এরপর ম্যাচের যোগ করা সময় পেনাল্টি থেকে গোল করে মেসি নিশ্চিত করেছেন কাভানি-সুয়ারেজের সঙ্গে পাল্লায় হারছে না তার দল। ইসরাইলের তেল আভিভে তাই দুইদলের প্রীতি ম্যাচ শেষ পর্যন্ত ড্র হয়েছে ২-২ এ।    

কোপা আমেরিকার সেমিফাইনালে ব্রাজিলের কাছে হারের পর তাই টানা ছয় ম্যাচ অপরাজিত থাকল লিওনেল স্কালোনির দল। অবশ্য হারটা আর্জেন্টিনাকে চোখ রাঙাচ্ছিল। যোগ করা সময়ের দুই মিনিটে বাম দিক থেকে পাওয়া ক্রস লাউতারো মার্টিনেজ নাগালে আনতে পারেননি। কিন্তু তাতে কপাল খুলে যায় আর্জেন্টিনার। মার্টিনেজের পেছনে থাকা উরুগুয়ে ডিফেন্ডার মার্টিন ক্যার্সারেসের হাতে বল লাগার পর রেফারি সঙ্গে সঙ্গেই বাজান পেনাল্টির বাঁশি। পরে গোলরক্ষক মার্টিন কাম্পানাকে ভুল দিকে পাঠিয়ে নিচু শটে গোল করে মেসি দ্বিতীয়বারের মতো সমতায় ফেরান আর্জেন্টিনাকে।

 প্রীতি ম্যাচ হলেও দুই দলই নিজেদের সেরা একাদশটাই নামিয়েছিল। উরুগুয়ে-আর্জেন্টিনার ফুটবলে অতীত শত্রুতা ম্যাচটাকে আর ‘প্রীতির’ মোড়কেও আটকে রাখেনি। তাই চার গোলের দুর্দান্ত এক ম্যাচ দেখেছে তেল আভিভ।