যে কারণে পাকিস্তানে দল পাঠাচ্ছে বাংলাদেশ

পাকিস্তান সফরকে সামনে রেখে মিরপুরে আজ টাইগারদের অনুশীলনও শুরু হয়েছে। সব কিছু ঠিক থাকলে আগামী ২২ জানুয়ারি লাহোরের উদ্দেশ্যে দেশ ত্যাগ করবে জাতীয় দলের বহর। আর ২৪ জানুয়ারি লাহোরে বাংলাদেশ আর পাকিস্তানের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। পরে খেলা দুটিও একই শহরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামেই অনুষ্ঠিত হবে।

অনেকের মনেই প্রশ্ন, আচ্ছা যে দেশে এখনো প্রাণঘাতি বোমাবাজি আর সন্ত্রাসী হামলায় অকাতরে মানুষ মারা যাচ্ছে, সেই পাকিস্তানে খেলতে যাবার ঝুঁকিটা আসলে কেন নিচ্ছে বিসিবি? তাও একবার-দুবার নয়, তিন-তিনবার পাকিস্তানের তিন শহর লাহোর, রাওয়ালপিন্ডি এবং করাচি যাওয়ার সিদ্ধান্ত কেন?

এর উত্তর দিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন স্বয়ং। জানালেন কেন পাকিস্তানে দল পাঠানো হচ্ছে।

পাকিস্তান সফর নিয়ে কথা বলতে গিয়ে পাপন জানান, আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপটাই সবচেয়ে গুরুত্ব পেয়েছে। আর আইসিসিও এ সিরিজ মনিটর করবে। আইসিসি লোকজন সিরিজ সরেজমিন তদারকে পাকিস্তানে যাবে।

বিসিবি বিগ বস বলেন, আসলে একটা চাপ ছিল। আমার মনে হয় এই টি-টোয়েন্টি সিরিজটি খেলে আসলে আমরা বুঝতে পারবো যে আসলে পরিস্থিতি কি এবং যদি আমাদের কোনো সমস্যা থাকে, এটা নিয়ে আমরা আলোচনা করতে পারবো এবং পরে কথা বলতে পারবো।

শুধু কি আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলার জন্যই আইসিসির পক্ষ থেকে চাপ দেয়া হয়েছে? আইসিসি কি পাকিস্তানের আর্থ-সামাজিক প্রেক্ষাপট, বর্তমান অবস্থা এবং সামগ্রিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরখ করে দেখেছে? পাকিস্তানে কি আসলে এখন খেলতে যাবার মত অবস্থা আছে?

এ প্রশ্নের উত্তরে পাপন জানান, আইসিসির সার্বক্ষণিক নজরদারি আছে। আইসিসিও পর্যবেক্ষক দল পাঠাচ্ছে এবং তাদের পক্ষ থেকে নিরাপত্তা পর্যবেক্ষক টিমও পাঠানো হবে।

বিসিবি সভাপতি পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন, আসলে আইসিসি আশ্বস্ত করাতেই পাকিস্তান খেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ।