বার্সেলোনায় গৃহযুদ্ধ, দল ছাড়তে পারেন মেসি!

বার্সেলোনায় যে একটা খারাপ অবস্থা যাচ্ছে সেটা টের পাওয়া গিয়েছিল অনেক আগেই। গুঞ্জন উঠেছিল বেশ কয়েকজন সিনিয়র তারকা খুশি ছিলেন না আর্নেস্তো ভালভার্দের উপর। তারা চাইছিলেন ভালভার্দেকে সরিয়ে দেওয়া হোক। তবে সে দাবি মানতে নারাজ ছিল বার্সা কর্তৃপক্ষ।

যা নিয়ে কোচের সাথে খেলোয়াড়দের দ্বন্দ্ব চরম আকার নেয়। যদিও বরাবরই ভালভার্দে দাবি করছিলেন তাদের দলে কোনো সমস্যা নেই। তবে দ্বন্দ্ব যে একটা ছিল সেটা হঠাৎ করেই সামনে চলে এসেছে।

বার্সেলোনার ক্রীড়া পরিচালক এরিক আবিদাল দাবি করেছেন, কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দের অধীনে কিছু খেলোয়াড় প্রত্যাশানুযায়ী খেলেনি। মানে তিনি দ্বন্দ্বের বিষয়টা একদম প্রকাশ্যে নিয়ে এসেছেন।

আর এতেই চটেছেন দলটির অধিনায়ক লিওনেল মেসি। সাবেক ক্লাব সতীর্থের প্রতি মেসির কড়া হুমকি, হয় (বাজে পারফরমারদের) নাম প্রকাশ করো নতুবা সবাইকে কলঙ্কিত করছ। দুজনের কথার লড়াইয়ে মনে হচ্ছে দ্বন্দ্ব আরও প্রকটই হচ্ছে।

‘স্পোর্ত’কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে আবিদাল বলেন, ‘(ভালভার্দের অধীনে) বেশ কিছু খেলোয়াড় সুখী ছিল না। তেমন একটা পারফরম্যান্সও করেনি। এ ছাড়া ব্যক্তিগত যোগাযোগের ক্ষেত্রেও সমস্যা ছিল। কোচ ও ড্রেসিং রুমের মধ্যে সম্পর্ক আগে ভালোই ছিল। তবে সাবেক ফুটবলার হিসেবে কিছু বিষয় টের পেয়েছি। আর তাই নিজের করণীয় সমন্ধে যা ভেবেছি সেটাই ক্লাবকে বলেছি।’

এই বক্তব্য এমন একসময় এসেছে যখন কিনা মেসির সাথে চুক্তি নবায়নের চেষ্টা চালাচ্ছে বার্সেলোনা। তবে কোনো একটি কারণে নতুন চুক্তি করতে চাচ্ছে না মেসি। অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন এটা কী সেই কারণ।

এদিকে, একটি স্প্যানিশ পত্রিকার দাবি, বার্সেলোনার কর্মকর্তাদের সাথে মেসির দ্বন্দ্ব দিন দিন প্রকট আকার ধারণ করছে। বিশেষ করে এবারের মৌসুমে প্রয়োজনীয় খেলোয়াড় দলে টানতে না পারায় বার্সার ওপর বেশ ক্ষুব্ধ মেসি। পরিস্থিতি এখনই ঠিক না হলে মেসি দরও ছাড়তে পারেন।

এখন বার্সেলোনা কর্তৃপক্ষির কাছে তিনটি অপশন। হয় আবিদালকে তার বক্তব্য প্রত্যাহার করতে হবে, অথবা তাকে পদত্যাগ করতে হবে কিংবা মেসিকে হারাতে হবে। এখন দেখা যাক কী হয়।