চেলসিকে বিধ্বস্ত করে কোয়ার্টারে এক পা বায়ার্নের

তারকা খেলোয়াড়দের হারিয়ে চেলসির আর আগের জৌলুশ নেই। এ মৌসুমে রীতিমতো ভুগছে তারা। তবুও খেলা ছিল নিজেদের মাঠে। তাতে একটু হলেও এগিয়ে ছিল ব্লুজরা। কিন্তু বায়ার্ন সব সমীকরণ পাল্টে দিয়েছে। স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ডের শিষ্যদের ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত করেছে বাভারিয়ানরা।

ট্রফি জেতার স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখতে হলে অ্যালিয়েঞ্জ অ্যারেনার ফিরতি লেগে ৪-০ ব্যবধানে জিততে হবে ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ডের শিষ্যদের।

নিজেদের মাঠ হলেও বায়ার্নের বিপক্ষে ম্যাচের পুরোটা সময় কোণঠাসা ছিল চেলসি। প্রথমার্ধে অবশ্য হ্যান্স ফ্লিকের শিষ্যদের আটকে রেখে নিজেরাও আক্রমণ শাণিয়েছিল।

কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে তিন মিনিটের ব্যবধানে ব্লুজদের সব হিসেব পাল্টে দেন সের্গে নাব্রি। ৫১ ও ৫৪ মিনিটে জোড়া গোল করে বসেন জার্মান মিডফিল্ডার। নাব্রির দুটি গোলেরই অ্যাসিস্ট করেছেন রবার্ট লেভানডভস্কি।

সতীর্থকে গোল করিয়ে অবশ্য থেমে থাকেননি লেভা। ৭৬তম মিনিটে ডিফেন্ডার আলফোনসো ডেভিসের পাস থেকে দলের তৃতীয় গোলটি করেন পোলিশ স্ট্রাইকার। সেই সঙ্গে ১১ গোল করে চলতি চ্যাম্পিয়নস লিগে সর্বোচ্চ গোলদাতাদের তালিকার শীর্ষস্থানটা অটুট রাখলেন লেভা।

এরপর কোথায় গোল শোধের জন্য মরিয়া হয়ে লড়বে চেলসি, উল্টো ১০ জনের দল হয়ে পড়ে তারা। ৮৩তম মিনিটে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন স্প্যানিশ মিডফিল্ডার মার্কোস আলোনসো। সেই সঙ্গে ঘরের সমর্থদের সামনে বড় হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় ব্লুজদের।