জাতীয় দলের জার্সিতে ফিরছেন ডি ভিলিয়ার্স

২০১৮ সালেই দক্ষিণ আফ্রিকা জাতীয় দলকে বিদায় বলে দেন ডি ভিলিয়ার্স। কিন্তু ৩৭ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যানকে দেখে কখনই মনে হয়নি, তার ফর্ম পড়তির দিকে। আইপিএলের মতো ভীষণ প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ আসরেও পারফর্ম করে যাচ্ছেন, রোববার কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে খেললেন ৩৪ বলে ৭৬ রানের বিধ্বংসী এক ইনিংস।

চলতি বছরই এই ভারতের মাটিতে আছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। ডি ভিলিয়ার্সের মতো ফর্মের তুঙ্গে থাকা একজন ব্যাটসম্যানকে কি না দেখা যাবে না এত বড় টুর্নামেন্টে? ভক্ত-সমর্থকরা ভীষণ হতাশ।

তবে আশার খবর শোনালেন ডি ভিলিয়ার্স। রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর হয়ে দুর্দান্ত ইনিংস খেলার পর জানালেন, অবসর ভেঙে জাতীয় দলে ফেরার ইচ্ছে আছে তার। সেটা নিয়ে দলের কোচ মার্ক বাউচার আর সতীর্থদের সঙ্গে কথাও বলছেন।

ডি ভিলিয়ার্স জানান, ‘আমার এখনও বাউচির (মার্ক বাউচার) সঙ্গে এটা নিয়ে আলাপ-আলোচনা পর্যায়ের কিছু হয়নি। সম্ভব হলে আইপিএল চলাকালীনই আমরা কোথাও আড্ডায় বসব। তবে হ্যাঁ, আমরা এই বিষয়টা নিয়ে কথা বলছিলাম।’

প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান যোগ করেন, ‘গত বছর সে আমাকে জিজ্ঞেস করেছিল-আমি আগ্রহী কি না (জাতীয় দলে ফিরতে)। আমি বলেছিলাম-অবশ্যই। এবারের আইপিএল শেষে দেখব ফর্ম এবং ফিটনেসটা কি পর্যায়ে আছে। সেইসঙ্গে তার দলের অবস্থাও দেখতে হবে। সেসব ছেলেরা গত কয়েক বছর ধরে পারফর্ম করছে তাদেরও তো দেখতে হবে।’

ডি ভিলিয়ার্স এখন বাউচারের উত্তরের আশায় আছেন। জোর করে দলে ঢুকে পড়ারও কোনো ইচ্ছে নেই তার। দুই পক্ষের মধ্যে আলোচনার পর যদি মনে হয়, তাকে দরকার, তবে অবসর ভেঙে ফিরতে আপত্তি নেই ‘মিস্টার ৩৬০ ডিগ্রি’র।

এদিকে, খবর মার্ক বাউচারিই চান এবি যেন আগামী বিশ্বকাপ খেলেন। এর আগেও কয়েকবার সরাসরি বিষয়টি জানিয়েছেন তিনি। সম্প্রতি আরও একবার এ নিয়ে কথা বললেন।