সমর্থকদের আন্দোলনে সুপার লিগের মৃত্যু

ফুটবল বিশ্বে যে ঝড় উঠেছিল, ৪৮ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই খেই হারালো সেটা। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ৬টি ক্লাব এক এক করে ‘বিদ্রোহী লিগে’ অংশগ্রহণ থেকে সরে আসার ঘোষণা দিয়েছে। তাদের সঙ্গে যোগ দিয়েছে ইতালির ইন্টার মিলান এবং স্পেনের অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ।

মোট ১২ ক্লাবের মধ্যে আটটি ক্লাবই নিজেদেরকে সরিয়ে নিয়েছে সুপার লিগের পরিকল্পনা থেকে।  তাতে নিশ্চিত যে এই লিগ আর হচ্ছে না।

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বেরিয়ে এসে বিদ্রোহী লিগের পরিকল্পনায় প্রাথমিকভাবে ১২টি ক্লাব নাম লিখেছিল। এখন বাকি আছে জুভেন্টাস, ইন্টার মিলান, রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনা।

সোমবার এবং মঙ্গলবার দিনভর সুপার লিগের পরিকল্পনাকে ধিক্কার জানিয়ে ফুটবল সমর্থকদের প্রবল আন্দোলন গড়ে তোলে। যা আছড়ে পড়েছিল ইংল্যান্ডের বিভিন্ন প্রান্তে। কেবল সমর্থকেরাই নন, তলে তলে এমন পরিকল্পনার বিরোধীতায় সুর চড়াচ্ছিলেন কোচ থেকে ফুটবলাররাও।

সোমবার প্রিমিয়ার লিগে লিডসের বিরুদ্ধে ম্যাচ শুরুর আগে সুপার লিগ ঘিরে লিভারপুল সমর্থকদের যে আন্দোলন এবং বিক্ষোভ শুরু হয়েছিল, মঙ্গলবার ব্রাইটনের বিরুদ্ধে মাঠে নামার আগে চেলসি সমর্থকদের সেই বিক্ষোভ মারাত্মক আকার ধারণ করে। শেষ পর্যন্ত সেই ক্ষোভের কাছে সুপার লিগের পরিকল্পনায় মাথা নোয়ানোয় খুশি সাবেক তারকারাও।

সাবেক ম্যানইউ তারকা গ্যারি নেভিল সুপার লিগের পরিকল্পনা হোঁচট খাওয়ায় বিয়ার হাতে সেলিব্রেশনের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন। লিভারপুলের সাবেক জেমস ক্যারাগার যেমন একটি এপিটাফের ছবি মজার ছলে পোস্ট করেছেন। সেখানে লেখা, ‘সুপার লিগের জন্ম : ৮ এপ্রিল, ২০২১ এবং মৃত্যু: ২০ এপ্রিল, ২০২১।’