আমির-হরভজনের বাগযুদ্ধে উত্তপ্ত টুইটার

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান দ্বৈরথের বেশ কয়েক দিন পার হলেও বাগযুদ্ধ থামছে না। দুই দেশের সাবেক ও বর্তমান তারকারা কথার লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন।

ম্যাচ শুরুর আগে শোয়েব আখতারকে খোঁচা দিয়ে হরভজন বলেছিলেন— ‘তোমরা খেলবে, আবার হারবে।’

ম্যঅচ জয়ের পর সে খোঁচার জবাব দিয়েছেন পাকিস্তানের পেসার মোহাম্মদ আমির। তাতেই লেগেছে বাগযুদ্ধ।

আমির টুইটারে জানতে চান— বিশ্বকাপে পাকিস্তানের কাছে ভারতের হারের পর হরভজন সিং নিজের টেলিভিশন সেট ভেঙে ফেলেছেন কিনা?

জবাবে আমিরকে ছক্কা মেরে তার ম্যাচ জেতানোর একটি ভিডিও পোস্ট করেন হরভজন। পাল্টা প্রশ্ন করেন, এই ছক্কাটিতে বল গিয়ে আমিরের ঘরের টেলিভিশন সেট ভেঙে দিয়েছিল কিনা?

পাল্টা জবাবে হরভজনের উদ্দেশ্যে আরেকটি ভিডিও পোস্ট করেন আমির। যেখানে দেখা যাচ্ছে— কোনো এক টেস্টে হরভজনের পর পর চারটি ডেলিভারিকে শহিদ আফ্রিদি চার ছক্কা মারেন।

সেই ভিডিও পোস্ট করে হরভজনকে বিদ্রূপ করে আমির লেখেন— ‘সব বোলারকেই বাউন্ডারি হজম করতে হয়। কিন্তু টেস্টে পর পর চার বাউন্ডারি হজম! আফ্রিদি আসছে, হরভজন এবার তুমি পালাও।’

এই পোস্ট দেখেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন হরভজন সিং। নিজেকে আর সামলাতে পারেননি এ অফস্পিনার। আমিরকে ব্যক্তিগতভাবে আক্রমণ করেন।

লর্ডসে আমিরের ম্যাচ ফিক্সিংকাণ্ডের প্রসঙ্গ তুলে হরভজন জানতে চান, টেস্ট ক্রিকেটে নো বল কীভাবে হয়? কার কাছ থেকে কত টাকা নিয়েছিলেন আমির?

ভাজ্জি আরও লেখেন—ক্রিকেটকে কলুষিত করা এবং তাদের সমর্থন করা মানুষদের লজ্জা হওয়া উচিত।

ব্যস শুরু হয় উত্তপ্ত বাক্যবিনিময়। পাল্টা জবাবে আমিরও হরভজনকে ব্যক্তিগত আক্রমণ করেন। তার বোলিং অ্যাকশনকে অবৈধ বলে দাবি করেন। হরভজনকে চাকার বলে খেপিয়ে তোলেন। হরভজনও সরাসরি আমিরকে ফিক্সার উল্লেখ করেন।

অনেকে আমির বনাম হরভজনের বাদানুবাদ বেশ উপভোগ করলেও কেউ কেউ এই উত্তপ্ত বাক্যবিনিময়ের এখনই সমাপ্তি টানতে বলছেন এ দুই তারকাকে।