আমেরিকা গিয়ে অপমানের শিকার ইমরান খান!

মার্কিন সফরে শুরুতেই ধাক্কা খেলেন পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট ইমরান খান। তাকে বিমানবন্দরে অভ্যর্থনা জানাতে হাজির হয়নি কোনো মার্কিন কর্মকর্তা বা প্রশাসনের কেউ।

তিনদিনের বিদেশ সফরে শনিবার স্থানীয় সময় বিকালে ওয়াশিংটন পৌঁছান ইমরান খান।

সংবাদ মাধ্যমের খবর, এর আগে আর কোনো রাষ্ট্রনেতার সঙ্গে এমন আচরণ করেনি মার্কিন প্রশাসন। অন্য দেশের রাষ্ট্রনেতারা আমেরিকায় পা রাখলেই তাঁদের জন্য কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করে সে দেশের জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থা (এনএসএ)। ইমরানের আশপাশে সে সবের কিছুই চোখে পড়েনি।

এদিকে, ব্যয় কমাতে প্রাইভেট নয়, কমার্শিয়াল ফ্লাইটে করেই সফর করেন পাক প্রধানমন্ত্রী। এমনকি তিনি হোটেলেও উঠবেন না। ব্যয় কমাতে ওয়াশিংটনে নিযুক্ত পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূতের সরকারি বাসভবনেই থাকবেন তিনি।

পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের শেয়ার করা একটি ভিডিওতে দেখা যায়, কমার্শিয়াল ফ্লাইট থেকে ইমরান খান বের হচ্ছেন। তাঁকে স্বাগত জানাতে হাজির ছিলেন, বিদেশমন্ত্রী ফাওয়াদ কুরেশি এবং পাক রাষ্ট্রদূত আসাদ এম খান।

তিন দিনের সফরে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে দেখা করতে ওয়াশিংটনে আসেন ইমরান খান। তাঁর সঙ্গে রয়েছেন পাক সেনা প্রধান জেনারেল কামার বাজওয়া, ইন্টার সার্ভিস ইন্টালিজেন্সের ডিরেক্টর-জেনারেল ফইজ হামিদ এবং উপদেষ্টা আবদুল রাজ্জাক দাউদ।