এক ধাক্কায় মন্ত্রী-বিধায়কদের দৈনিক ভাতা দ্বিগুণ করলেন মমতা

এক ধাক্কায় মন্ত্রী-বিধায়কদের দৈনিক ভাতা দ্বিগুণ করে দিলেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। শুক্রবার বিধানসভায় এ ঘোষণা দেন মমতা।

তবে কবে থেকে বর্ধিত ভাতা দেয়া হবে তা মুখ্যমন্ত্রী এদিন স্পষ্ট করেননি। তবে মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণাটুকুই যথেষ্ট ছিল। দল নির্বিশেষে বিভেদ মুছে গিয়ে বিধায়করা এদিন টেবিল চাপড়ে মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণাকে স্বাগত জানান। টাইমস অব ইন্ডিয়া।

বিধানসভার ওই ঘোষণায় মমতা বলেন, ‘যে দৈনিক ভাতা আগে এক হাজার টাকা ছিল, তা এখন বাড়িয়ে ২০০০ টাকা করা হচ্ছে। একই সঙ্গে রাজ্যের মন্ত্রীদের যে দৈনিক ভাতা ছিল, তাও বাড়ানো হয়েছে। মন্ত্রীদের দৈনিক ভাতা ২০০০ থেকে বাড়িয়ে ৩০০০ টাকা করা হয়েছে।’ রাজ্য সরকারের কর্মকর্তাদের বেতন বৃদ্ধি নিয়ে দরকষাকষির মধ্যেই এ সিদ্ধান্ত নিলেন মমতা।

বৃহস্পতিবারই বিধায়কদের বেতন বৃদ্ধির প্রস্তাব রাজ্যসভার অধ্যক্ষ বিমান ব্যানার্জির কাছে পাঠানো হয়। ওই দিনই তিনি তা নবান্নে পাঠিয়ে দেন। সেই প্রস্তাব পর্যালোচনা করেই এদিন বিধায়কদের ভাতা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গের মূল বেতন ২৭ হাজার এক টাকা। সঙ্গে ৯০ হাজার টাকা ভাতা। অর্থাৎ যা যুক্ত হলে মোট অঙ্ক হয় এক লাখ ১৭ হাজার এক টাকা মাসে।

অন্যদিকে পশ্চিমবঙ্গের পূর্ণ মন্ত্রীদের বেতন মাসিক ২২ হাজার টাকা। তার সঙ্গে যুক্ত হয় ৯০ হাজার টাকা ভাতা। যার জেরে মোট মাসিত বেতন হয় এক লাখ ১২ হাজার টাকা।

প্রতিমন্ত্রীদের মূল মাসিক বেতন ২১ হাজার ৯০০ টাকা। তার সঙ্গেও যুক্ত হয় ৯০ হাজার টাকা ভাতা। যার জেরে মোট বেতন মাসে হয় এক লাখ ১১ হাজার ৯০০ টাকা।

পাশাপাশি বিধায়কদের মূল বেতন মাসিক ২১ হাজার ৮৭০ টাকা। তার সঙ্গে যুক্ত হয় ৬০ হাজার টাকা ভাতা। যার জেরে মাসিক বেতন হয় ৮১ হাজার ৮৭০ টাকা। এরপর আবার থাকা বিধানসভা চলাকালীন প্রত্যেক বিধায়ক বিধানসভা উপস্থিত থাকার ভাতা। যা এদিন দ্বিগুণ হল।