সৌদি তেলক্ষেত্রে ড্রোন হামলার পর লাফিয়ে বাড়ল তেলের দাম

সৌদি আরবের তেল কোম্পানি আরামকোর দুটি তেলক্ষেত্রে ড্রোন হামলার ঘটনায় বৈশ্বিক বাজারে লাফিয়ে বেড়েছে জ্বালানি তেলের দাম।

শনিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) ড্রোন হামলায় তেলক্ষেত্র দুটির ব্যাপক ক্ষতির কারণে বৈশ্বিক তেল সরবরাহে বিঘ্ন ঘটছে। এতে বৈশ্বিক তেল সরবরাহ ৫ শতাংশ কমে গেছে।

বিবিসি জানায়, গত চার মাসের মধ্যে তেলের দাম সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে। ব্রেন্ট ক্রুড ব্যারেল প্রতি ১৯ শতাংশ বেড়ে ৭১.৯৫ ডলারে স্পর্শ করেছে। অন্যদিকে ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট ১৫ শতাংশ বেড়ে ৬৩.৩৪ ডলারে পৌঁছেছে।

অবশ্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নিজেদের রিজার্ভ থেকে তেল সরবরাহের নির্দেশ দিলে দাম কিছুটা কমে আসে।

সৌদি আরবের ক্ষতিগ্রস্ত দুটি তেলক্ষেত্রের উৎপাদন শুরু হতে কয়েক সপ্তাহ লাগতে পারে বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় তেলক্ষেত্র খুরাইশে কারা হামলা চালিয়েছে তা এখনো স্পষ্ট নয়। যদিও ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহীরা এ হামলার দায় স্বীকার করেছে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও এ হামলার জন্য সরাসরি ইরানকে দায়ী করেছেন। কিন্তু ইরানের পক্ষ থেকে এ অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে।