ভাগ হয়ে গেল জম্মু ও কাশ্মীর

কাশ্মীরের জন্য ভারতের সংবিধানের ৩৭০ নম্বর অনুচ্ছেদ বিলোপ এবং জম্মু-কাশ্মীর পুনর্গঠন বিল আনার ফলে শুধু বিশেষ মর্যাদা নয়, রাজ্যের মর্যাদাটুকুও হারায় জম্মু ও কাশ্মীর। পূর্বঘোষণা মতো বুধবার (৩১ অক্টোবর) মধ্যরাত থেকেই রাজ্যের মর্যাদা হারাল জম্মু-কাশ্মীর।

আজ থেকে আর রাজ্য নয়। দুই কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলে দুই ভাগ উপত্যকা। আত্মপ্রকাশ জম্মু কাশ্মীর এবং লাদাখের। অনাড়ম্বরেই শপথ গ্রহণ করলেন দুই উপ-রাজ্যপাল। জঙ্গি হানার আশঙ্কায় উপত্যকা জুড়ে ব্যাপক নিরাপত্তা।

ভারতের মানচিত্রে জম্মু-কাশ্মীর এখন কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল। লাদাখও এখন পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল। ফলে, ভারতে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল বেড়ে দাঁড়াল ৯। একটি রাজ্য কমে যাওয়ায় আজ থেকেই ভারতের মানচিত্রে রাজ্যের সংখ্যা দাঁড়াল ২৮।

জম্মু-কাশ্মীর হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি গীতা মিত্তলের সামনে শপথ নিলেন নতুন উপরাজ্যপাল জিসি মুর্মু। লে-তে শপথগ্রহণ করেন লাদাখের নতুন উপরাজ্যপাল রাধাকৃষ্ণ মাথুর। রচিত হল নতুন ইতিহাস।

উত্সবের আমেজ লাদাখে। তবে কাশ্মীরে মতোয়ানে বাড়তি বাহিনী। আঁটোসাঁটো নিরাপত্তা। বলতে গেলে জনমানবহীন গোটা উপত্যকা।