বাবরি মসজিদ রায়, যা বললেন রাহুল গান্ধী ও ওয়াইসি

ভারতের সুপ্রিম কোর্টের রায় অনুযায়ী, অযোধ্যার বিতর্কিত জমি দেওয়া হবে হিন্দুদের বা মন্দির পক্ষকে। আর অন্যত্র ৫ একর জমি পাবেন মুসলিমরা। যেখানে ভেঙে ফেলা বাবরি মসজিদ গড়ে তোলা হবে।

ভারতের শীর্ষ আদালতের এই সিদ্ধান্তের পরই সকলকে শান্ত থাকতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আহ্বান জানিয়েছেন ধর্ম বিভেদ বুলে ভারতশক্তি গড়ার।

এবার এ নিয়ে মুখ খুললেন বিরোধীদলের অন্যতম নেতা রাহুল গান্ধী। কংগ্রেসের এই নেতা বলেন, সুপ্রিম কোর্ট অযোধ্যা ইস্যুতে রায় ঘোষণা করেছে। আদালতের এই সিদ্ধান্তকে সম্মান জানিয়ে আমাদের সকলকে পারস্পরিক সম্প্রীতি বজায় রাখতে হবে। এই সময় আমাদের সকল ভারতীয়দের কাছে ভ্রাতৃত্ব, বিশ্বাস এবং ভালবাসার সময়।

তার দল কংগ্রেস বিবৃতিতে এই রায়কে স্বাগত জানিয়ে সকলকে শান্ত থাকার পরামর্শ দেয়।

শীর্ষ আদালত রায়ে বলেছে, অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে ট্রাস্টের তত্ত্বাবধানে মন্দির তৈরি হবে। বিকল্প পাঁচ একর জমি পাবে মুসলিমদের পক্ষের ‘সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড’। এই মামলারই অন্যতম পক্ষ নির্মোহী আখড়া। আখড়ার তরফে সুপ্রিম রায়কে স্বাগত জানানো হয়েছে। কিন্তু, এই রায়ে খুশি নয় সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড।

তাদের আইনজীবী জাফরাইব জিলানি বলেন, আমরা রায়কে সম্মান জানাই। কিন্তু, এতে আমরা সন্তুষ্ট নই। আমরা পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে চিন্তা ভাবনা করব।’’  তবে এ নিয়ে তাঁরা যে কোনওরকম বিক্ষোভ বা প্রতিবাদ করবেন না বলেও স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন।

এআইএমএম প্রধান আসাদুদ্দিন ওয়াইসি বলেন, আদালত মেনে নিয়েছে যে, পুরাতত্ত্ব সর্বেক্ষণ বিভাগের রিপোর্টে বলা হয়েছে ওখানে মন্দির ছিল না। রায় দেওয়ার ক্ষেত্রে সুপ্রিম কোর্ট যে ১৪২ আর্টিকলের ব্যবহার করেছে তাতে আমরা সন্তুষ্ট নই। এই রায় সৌভ্রাতৃত্বের নয়।

উল্লেখ্য, আদালত বাবরি মসজিদ ভাঙাকে অন্যায় হিসেবে অ্যাখ্যা দিয়েছে। তবে তারা বলেছে, বাবরি মসজিদ কোনো খালি জায়গায় তৈরি হয়নি। এই মসজিদ কোনো স্থাপনা ভেঙে তৈরি হয়েছে। তবে কোন স্থাপনা তা আদালত জানাতে পারেনি।