বাবরি মসজিদ রায়, সেই চিঠি নিয়ে মুখ খুলেছে ভারত

অযোধ্যা মামলা নিয়ে প্রধান বিচারপতিকে কোনও চিঠি দেননি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যম এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় যে চিঠিটি ঘুরছে, সেটি ভুয়া দাবি করে বিবৃতি প্রকাশ করেছে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

গতকাল রাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের মুখপাত্র রবীশ কুমার টুইটারে লেখেন, দুই সম্প্রদায়ের মধ্যে বিভাজন তৈরি করতে, ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি করতে, ইচ্ছাকৃত ভাবে এই ভুয়া এবং বিদ্বেষপূর্ণ খবর ছড়ানো হচ্ছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা করছি।

বিষয়টি নিয়ে ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনের তরফেও একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়েছে। টুইটারে সেটি পোস্ট করেন রবীশ কুমার।

তাতে বলা হয়েছে, এই চিঠি সম্পূর্ণ ভুয়া এবং বিদ্বেষপূর্ণ। বাংলাদেশের মানুষকে বিভ্রান্ত করতে এবং সামাজিক সম্প্রীতি বিনষ্ট করতে ইচ্ছাকৃত ভাবে মিথ্যা প্রচার করা হচ্ছে।

সম্প্রতি প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈকে লেখা নরেন্দ্র মোদির একটি ভুয়া চিঠি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। তাতে লেখা হয়, এই ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তের জন্য হিন্দুরা আপনাদের কাছে চিরকাল কৃতজ্ঞ থাকবে।