প্রেমিকার সাথে দেখে ফেলায় মেয়েকে শিকলে বেঁধে ধর্ষণ করল বাবা

শিকলে বেঁধে ১৭ বছরের এক তরুণীকে ধর্ষণ করেছেন তার বাবা। ভারতের রাজস্থান প্রদেশের জালোর জেলায় নিজ বাড়িতেই নির্মম এ নির্যাতনের শিকার হন ওই তরুণী। 

স্থানীয় পুলিশের বরাতে অনলাইন প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে দেশটির টেলিভিশন চ্যানেল এনডিটিভি।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, পুলিশের কাছে করা অভিযোগে ধর্ষণের শিকার ওই তরুণী জানিয়েছেন, তার বাবা তার হাত ও পা ভারী চেইন দিয়ে বেঁধে তাকে ধর্ষণ করেছেন। তিনি তার বাবাকে অপর এক নারীর সঙ্গে দেখার পরপরই তার বাবা তাকে শেকল দিয়ে বেঁধে নির্মম এই নির্যাতন করেন।

পুলিশের দেয়া ভাষ্য অনুযায়ী, ধর্ষণের শিকার ওই তরুণী বাড়ি থেকে পালিয়ে তার নানার বাড়ি যান। তারপর তরুণীর হয়ে স্থানীয় থানায় ধর্ষণের অভিযোগ দাখিল করেন তার মামা। তরুণী বলেছেন, তার বাবা কয়েক দিন ধরেই তাকে চেইন দিয়ে বেঁধে রেখে নিয়মিত ধর্ষণ করতেন।

ধর্ষণের শিকার ওই তরুণীর মামা বলেন, সাত বছর আগে তার বোন অভিযুক্ত ধর্ষককে ছেড়ে চলে যান। স্বামীর হাতে প্রতিনিয়ত নির্যাতিত হওয়ার পর বাড়ি ছাড়তে বাধ্য হন তিনি। তারপর তিনি অন্য একজনকে বিয়ে করেন। তবে তার মেয়ে বাবার সঙ্গেই ছিল এত দিন।