কনডম পরতে বলায় নারীকে গলাকেটে হত্যা

গ্রাহককে সুরক্ষিত যৌনতা করার আর্জি জানিয়েছিলেন। বার বার বলেছিলেন কনডম পরতে। এই আর্জিতে বিরক্ত গ্রাহক গলা কেটে খুন করলেন এক যৌনকর্মীকে।
সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে কর্নাটকের বেঙ্গালুরুর রাজাজিনগরে। এই খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত ব্যক্তিকে বুধবার গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, যৌনকর্মীকে খুনের ঘটনায় অভিযুক্তের নাম মুকুন্দ। তাঁর বাড়ি ইলেকট্রনিক্স সিটির কাছে। জেরার সময় তিনি খুনের কথা স্বীকার করেছেন।

জানাগেছে, গত ১১ জানুয়ারি বেঙ্গালুরুর ম্যাজেস্টিক বাসস্ট্যান্ডে দাঁড়িয়ে ছিলেন মুকুন্দ। সে সময় তাঁর সঙ্গে আলাপ হয় ওই মহিলার। অভিযোগ ওই মহিলা তাকে ২ হাজার ৫০০ টাকার বিনিময়ে যৌনতার প্রস্তাব দেন। শেষমেশ রফা দাড়ায় ১ হাজার ৫০০ টাকায়। মুকুন্দ ওই মহিলাকে ৫০০ টাকা আগাম দেন। তার পর তাঁরা দু’জন মিলে মহিলার বাড়ি রাজাজিনগরে যান।

বাড়ি পৌঁছে মুকুন্দ বাকি এক হাজার টাকাও দিয়ে দেন। তখন ওই মহিলা সুরক্ষিত যৌন সংসর্গের কথা জানায় মুকুন্দকে। কিন্তু তাতে রাজি ছিলেন না মুকুন্দ। তাই তিনি টাকা ফেরত চান। কিন্তু টাকা ফেরত দিতেও রাজি ছিলেন না ওই মহিলা। তখন মুকুন্দ ছুরি নিয়ে তাঁকে ভয় দেখাতে থাকেন। তখন মহিলা চেঁচালে তাঁর পেটে ছুরি ঢুকিয়ে দেন মুকুন্দ। পরে গলার নলিও কেটে দেন।

এই ঘটনার দিন ওই মহিলার ছেলে স্কুল থেকে ফিরে মায়ের মৃতদেহ দেখে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে দেহ উদ্ধার করে।