অবশেষে নীরবতা ভাঙলেন মোদী

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে রক্তক্ষয়ী সাম্প্রদায়িক সহিংসতার চতুর্থ দিনে মুখ খুলেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

‘শান্তি এবং ভ্রাতৃত্ববোধ বজায় রাখতে দিল্লির ভাইবোনদের প্রতি’ আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে এক টুইট বার্তায় এ আহ্বান জানান ‘গুজরাট দাঙ্গায় প্রশ্নবিদ্ধ ভূমিকার’ জন্য অভিযুক্ত এই বিজেপি নেতা।

টুইটে তিনি বলেন, দিল্লির বিভিন্ন অংশের বর্তমান পরিস্থিতি বিশদভাবে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। শান্তি এবং স্বাভাবিক অবস্থা নিশ্চিত করতে পুলিশ এবং অন্যান্য সংস্থা মাঠে কাজ করে যাচ্ছে।

অপর এক টুইটে তিনি বলেন, আমাদের নীতির কেন্দ্রবিন্দু হলো শান্তি এবং ঐক্য। সব সময় শান্তি এবং ভ্রাতৃত্ববোধ বজায় রাখতে আমার দিল্লির ভাইবোনদের প্রতি আবেদন করছি আমি।

এদিকে, প্রায় দেড় দশকের মধ্যে নজিরবিহীন এই সাম্প্রদায়িক সহিংসতার দায় নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের পদত্যাগ দাবি করেছেন কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়া গান্ধী।

তিনি বলেন, গত সপ্তাহে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কোথায় ছিলেন? কী করছিলেন তিনি? পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে দেখেও কেন আগে থেকে আধাসেনা ডাকা হলো না?

দিল্লির সংঘর্ষের জন্য বিজেপিকে দায়ী করে কংগ্রেস সভানেত্রী বলেন, এই সংঘর্ষের পেছনে পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র রয়েছে। দিল্লির ভোটের সময় দেশবাসী সেটা দেখেছে।

বিবিসি বাংলা জানায়, পুলিশের ভূমিকা নিয়ে বিতর্ক আছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কিছু ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে, যেখানে দাঙ্গাকারীদের সঙ্গে পুলিশ দাঁড়িয়ে আছে দেখা যাচ্ছে।