মার্কিন তেল ভাণ্ডারে মিশাইল হামলা

বিশ্বজুড়ে প্রবল করোনা আতঙ্ক। একের পর এক দেশে ক্রমশ মৃত্যু মিছিল। ভয়ঙ্কর অবস্থা আমেরিকাজুড়ে। ক্রমশ সে দেশে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। এই পরিস্থিতিতে মিসাইল হানা।

পরপর তিনটি মিসাইল ছোঁড়া হল মার্কিন তৈল উৎপাদন কেন্দ্রে। মার্কিন তেলের ভান্ডারে একের পর এক এভাবে মিসাইল নিক্ষেপের ঘটনায় দাউ দাউ করে জ্বলছে মার্কিন তেলের ভান্ডারগুলি।

যদিও এখনও পর্যন্ত কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। এই ঘটনায় তীব্র উত্তেজনা তৈরি হয়েছে।

দক্ষিণ ইরাকের বাসরা প্রদেশের বুরজেসিয়া এলাকায় হ্যালিবার্টন নামে ওই তেলের উৎপাদ কেন্দ্র রয়েছে। সেখানেই টার্গেট করা হয়েছে ওই মিসাইল।

সোমবার ইরাক সেনার তরফে এই খবর জানানো হয়েছে। এখনও পর্যন্ত ওই হামলার দায় কেউ স্বীকার করেনি। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

হ্যালিবার্টনে কর্মরত একজন জানিয়েছেন সাইট থেকে অনেকটা দূরে গিয়ে পড়েছে রকেট।

ওই এলাকায় ইরাকের এবং অন্যান্য দেশের তেলের কোম্পানির অফিস রয়েছে। কিন্তু করোনা আতঙ্কের জেরে বিদেশিদের সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। ফলে আপাতত ওই অঞ্চল প্রায় ফাঁকা বললেই চলে। বাসরা অয়েল কোম্পানির তরফ থেকে জানানো হয়েছে ওই মিসাইল হানায় তেলের উৎপাদনে কোনও প্রভাব পড়েনি। রফতানিও স্বাভাবিক ভাবেই চলছে।

গত বছর জুন মাসেও বাসরার অয়েল সাইটে মিসাইল নিক্ষেপ করা হয়েছিল। ওই ঘটনায় তিনজন কর্মী আহতও হয়েছিলেন। এদিন হমালার পর ওই এলাকা থেকে মার্কিনিদের সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ইরানের প্যারামিলিটারি গ্রুপ একাধিকবার ইরাকের ওই অঞ্চলে শেলিং করেছে, রকেটও ছুঁড়েছে।