করোনা আতঙ্কের মাঝেই পাক-ভারত সীমান্তে যুদ্ধাবস্থা

গোটা বিশ্বজুড়ে যখন মার‍ণব্যাধি করোনা ভাইরাসকে মোকাবিলার কৌশলের খোঁজ চলছে ঠিক সেইসময় ভারত ও পাকিস্তান সীমান্তে উত্তজনা বাড়ছে। এক সপ্তাহে তিনদিন সংঘাতে জড়িয়েছে দুই দেশ।

জানা গিয়েছে, শুক্রবার জম্মু ও কাশ্মীরের কুপওয়ারা সেক্টরে চলছে ব্যপক গুলির লড়াই।

এর আগে গত শনি ও সোমবার সংঘাতে জড়ায় তারা। যদিও কোনো নিহতের খবর মেলেনি।

গোলাগুলি এখনও চলছে। দুই দেশি মর্টার শেল ব্যবহার করছে। হামলার জন্য একে অপরকে দায়ী করছে তারা।

পরিসংখ্যান জানাচ্ছে, বছরের প্রথম মাস অর্থাৎ জানুয়ারিতে মোট ৩৬৭ বার, ফেব্রুয়ারিতে ২৯ দিনে সংখ্যাটা ৩৬৬, মার্চে ৪১১ বার ও এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহেই ইতিমধ্যে ৫৩ বার সংঘাতে জড়িয়েছে এই দুই দেশ।

এদিকে, মঙ্গলবার শ্রীনগর থেকে ৪২ কিলোমিটার দূরে বিজবেহারার আইএস হামলায় প্রধান কনস্টেবল শিব বারতের দুই পুলিশ নিহত হয়। মঙ্গলবার সন্ধ্যেবেলা খবর মেলে ওই এলাকায় লুকিয়ে রয়েছে বেশ কিছু জঙ্গি। এরপরেই তৎপর হয়ে ওঠে বাহিনী। দীর্ঘ ১৪ ঘন্টা জঙ্গিদের অবরুদ্ধ রাখার পর শুরু হয় গুলির লড়াই। সেই লড়াইয়েই নিকেশ হয় জঙ্গি কমান্ডার।

অন্যদিকে, রবিবারও জঙ্গিদের সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে ৫ জঙ্গিকে খতম করে বারত। শহিদ মোট ৫ জওয়ান। তবে শনি রবিবার মিলে নিকেশ করা হয় মোট ৯ জঙ্গিকে। জম্মু ও কাশ্মীরের কেরান সেক্টরে কুপওয়াড়ায় এই জঙ্গিদমন আভিযান চালিয়েছিল। গত ৩ এপ্রিল থেকে এই অভিযান চলছে।

তাতেই পরিস্থিতি ঘোলাটে হয়ে উঠে। ভারত এর জন্য পাকিস্তানকে দায়ী করছে।