ভারতে ঘন্টায় ৬০ জনের মৃত্যু করোনায়

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে কার্যত দিশেহারা গোটা ভারত। দেশটিতে এই প্রথমবার দৈনিক মৃত্যু পেরিয়েছে এক হাজার ৭০০। সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার এ খবর জানিয়েছে।

ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যানে দেখা যাচ্ছে, গত রোববার সে দেশে প্রতি ঘণ্টায় সংক্রমিত হয়েছে ১০ হাজার ৮৯৫ জন এবং ৬২ জনের মৃত্যু হয়েছে প্রতি ঘণ্টায়। গত সোমবার সে সংখ্যাটা বেড়ে ঘণ্টায় সংক্রমণ ও মৃত্যু যথাক্রমে ১১ হাজার ৪০৮ ও ৬৭। গতকাল অবশ্য সংক্রমণ সামান্য কমলেও (ঘণ্টায় ১০ হাজার ৭৯৮) ঘণ্টাপিছু মৃত বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৩।

গতকাল অ্যাক্টিভ রোগীর সংখ্যাও ২০ লাখের গণ্ডি পেরিয়েছে। এর মধ্যে ৬২ দশমিক শূন্য ৭ শতাংশই পাঁচটি রাজ্যে—মহারাষ্ট্র, উত্তরপ্রদেশ, কর্ণাটক, ছত্তিসগড় ও কেরালা। দৈনিক সংক্রমণের মতোই দৈনিক মৃত্যুর তালিকাতেও শীর্ষে মহারাষ্ট্র। তবে, দৈনিক মৃত্যুর ক্ষেত্রে দ্বিতীয় স্থানে দিল্লি থাকলেও দৈনিক সংক্রমণে মহারাষ্ট্রের পেছনেই উত্তরপ্রদেশ।

সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনতে টিকাকরণের হার বাড়ানোর ওপর জোর দিচ্ছে ভারত সরকার। তাই প্রতিষেধকের ওপর থেকে আমদানি শুল্ক ১০ শতাংশ কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে সূত্রের খবর। রেমডেসিভিয়ারসহ কিছু ওষুধের কাঁচামালের আমদানি শুল্কও কমিয়েছে ভারত সরকার।

এ দিকে গুজরাটের বিজয় রুপানি সরকারের বিরুদ্ধে তথ্য গোপনের অভিযোগ এরই মধ্যে উঠেছে। এবার অভিযোগ উঠল, তথ্য গোপনের হাতিয়ার হিসেবে কোভিডে মৃতদের অসুস্থ বলে চিহ্নিত করা হচ্ছে।