নন্দীগ্রামে নাটকীয়তা, শুভেন্দুকে জয়ী ঘোষণা

পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু নন্দীগ্রামের ভোট নিয়ে চরম নাটকীয়তা তৈরি হয়েছে। ১৭ রাউন্ড ভোট গণনার পর খবর আসে, সেখানে তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা ব্যানার্জি জয়ী হয়েছেন। কিন্তু সন্ধ্যা গড়াতেই মমতার জয় নিয়ে বিভ্রান্তি শুরু হয়।

ভোট গণনার শুরু থেকেই সবার নজর ছিল নন্দীগ্রামের দিকে। কে জেতেন এ আসনে তা নিয়ে ছিল জল্পনা। কারণ এই আসনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। নির্বাচন কমিশন জানালো, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ১৯৫৩ ভোটে হারিয়েছেন শুভেন্দু।

সাংবাদিক বৈঠকে নন্দীগ্রামে হেরে গিয়েছেন বলে জানান মমতা। তিনি বলেন, নন্দীগ্রাম যা রায় দেবে, মাথা পেতে নেবো।

নিজে হারলেও দলের জয়ের জন্য পশ্চিমবঙ্গের মানুষকে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন মমতা।  

তিনি বলেন, বাংলার জয়ের জন্য সকলকে অভিনন্দন। বাংলার জয়, মানুষের জয়।  

ফলাফল নিয়ে এই বিভ্রান্তির বিরুদ্ধে আদালতে যাবেন বলে জানিয়েছেন মমতা। তার অভিযোগ, আমার কাছে অভিযোগ রয়েছে, রায় ঘোষণার পর কারচুপি হয়েছে।

আনন্দবাজারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, সার্ভারের ত্রুটির জেরে দুপুরে এমনিতেই চল্লিশ মিনিট ভোটগণনা বন্ধ ছিল নন্দীগ্রামে। তার পর মমতার জয়ের খবর সামনে আসার পরও কোনো তথ্য প্রকাশ করতে পারেনি কমিশন। তার পরেই জানা যায়, শুভেন্দু জয়ী হয়েছেন। তবে কমিশনের পক্ষ থেকে এখনও পর্যন্ত এ নিয়ে কোনো বিবৃতি প্রকাশ করা হয়নি।