ড্রোন বিক্রি নিয়ে তুরস্ক-রাশিয়ার দ্বন্দ্ব

ইউক্রেনের কাছে ড্রোন বিক্রি নিয়ে তুরস্ক আর রাশিয়ার মধ্যে শীতল যুদ্ধ চলছিল। এবার তা এসেছে প্রকাশ্যে। তুরস্ককে সরাসরি হুঁশিয়ারি দিয়েছে রাশিয়া।

রুশ প্রেসিডেন্টের দপ্তরের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেছেন, ইউক্রেনকে এ ধরণের অস্ত্র দেওয়া হলে তা গোটা অঞ্চলে অস্থিতিশীলতার কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে।

কিছু দিন আগে ইউক্রেন তুরস্কের কাছ থেকে কয়েকটি ড্রোন কিনেছে। এরই মধ্যে ইউক্রেন এসব ড্রোন সরকার বিরোধীদের মোকাবেলায় ব্যবহার শুরু করেছে বলে খবর বেরিয়েছে।

ক্রিমিয়ায় বসবাসকারী তাতারী সম্প্রদায়ের সঙ্গে তুরস্কের ঐতিহাসিক সম্পর্ক রয়েছে। এ কারণে ক্রিমিয়াকে রাশিয়ার সঙ্গে অন্তর্ভুক্তি ইস্যুতে ইউক্রেনের পক্ষে অবস্থান নিয়েছিল তুরস্ক।

২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে ক্রিমিয়াকে নিজেদের ভূখণ্ড হিসেবে ঘোষণা দেয় রাশিয়া। ওই বছরই রুশ সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী ক্রিমিয়া দখল করে নেয়। এর পর থেকে ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে রুশপন্থি বিদ্রোহীদের সঙ্গে ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর লড়াইয়ে এ পর্যন্ত কয়েক হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছে।

রুশ বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো জোট ইউক্রেনকে সমর্থন দিচ্ছে।