ভারতের সাথে সম্পর্ক উন্নয়নে আগ্রহী পাকিস্তান

ভারতের সাথে সম্পর্ক উন্নয়নে আগ্রহ প্রকাশ করেছে পাকিস্তান। এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব ইতোমধ্যেই তারা ভারতকে দিয়েছে।


মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারি) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে পাকিস্তানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।


ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, পাকিস্তানের নতুন জাতীয় নিরাপত্তা নীতির একটি অংশ জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে। প্রায় ১০০ পৃষ্ঠার এই পলিসিতে ভারতসহ প্রতিবেশী সব দেশের সঙ্গে শান্তি ও অর্থনৈতিক-কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদারের কথা উল্লেখ করা হয়েছে।


নতুন জাতীয় নিরাপত্তা নীতি সম্পর্কে জানেন দেশটির এমন একজন সরকারি কর্মকর্তা বলেন, আগামী ১০০ বছর আমরা ভারতের সঙ্গে কোনও শত্রুতা চাই না। নতুন নীতিতে প্রতিবেশী সব দেশের সঙ্গে শান্তি স্থাপনের কথা বলা হয়েছে।


তিনি আরও বলেন, পাকিস্তানের নতুন জাতীয় নিরাপত্তা নীতির কেন্দ্রীয় থিম হবে অর্থনৈতিক নিরাপত্তা। তবে আমরা ভূ-কৌশলগত এবং ভূ-রাজনৈতিক স্বার্থ উপেক্ষা করছি না। একইসঙ্গে নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বাধীন বর্তমান ভারত সরকারের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের কোনও সম্ভাবনা নেই বলেও মন্তব্য করেন তিনি।


এর ফলে কাশ্মীর সমস্যার চূড়ান্ত নিষ্পত্তি না হলেও দুই দেশের ব্যবসা ও বাণিজ্যিক সম্পর্কের দরজা উন্মুক্ত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।


প্রসঙ্গত, ঐতিহাসিকভাবেই পাকিস্তান ও ভারতের সম্পর্ক বৈরিতাপূর্ণ। বহু বছর ধরে দেশ দুটির মধ্যে লড়াই চলছে। তবে ২০১৪ সালের দিকে মোদী সরকারের প্রথম মেয়াদে দুই দেশের সম্পর্ক একটি ইতিবাচক মোড় নেয়। ২০১৬ সালে উরি হামলার পর তাতে ফাটল ধরে। এরপর আকস্মিকভাবে বিরোধপূর্ণ কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন বাতিল করে ভারত। এর প্রতিক্রিয়ায় পাকিস্তান-ভারতের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক শীতল হয়। কার্যত ২০১৯ সালের আগস্ট থেকে দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্ক অচলাবস্থায়।