ভারতে হেলিকপ্টার বিধ্বস্তে ২ পাইলট নিহত

ভারতে অবতরণের সময় একটি হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে দু’জন পাইলট নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১২ মে) রাতে দেশটির ছত্তিশগড়ের রায়পুরের স্বামী বিবেকানন্দ বিমানবন্দরে দুর্ঘটনাটি ঘটে। শুক্রবার (১৩ মে) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।


নিহত পাইলটরা হলেন- ক্যাপ্টেন গোপাল কৃষ্ণ পান্ডা এবং ক্যাপ্টেন এপি শ্রীবাস্তব।


বিমান দুর্ঘটনার বিষয়ে দেশটির সিনিয়র পুলিশ সুপার (এসএসপি) প্রশান্ত আগরওয়াল জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার রাত ৯টা ১০ মিনিটে ছত্তিশগড়ের রায়পুরের স্বামী বিবেকানন্দ বিমানবন্দরে উড্ডয়ন অনুশীলনের সময় হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের এই ঘটনাটি ঘটে।


তাৎক্ষণিকভাবে দুর্ঘটনার কারণ জানা যায়নি। তবে সঠিক কারণ খুঁজে বের করার জন্য ভারতের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ ডিরেক্টরেট জেনারেল অব সিভিল এভিয়েশন (ডিজিসিএ) এবং ছত্তিশগড় সরকারের পক্ষ থেকে বিশদ প্রযুক্তিগত তদন্ত করা হবে।


এদিকে এই ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী। এক টুইট বার্তায় তিনি বলেন, ‘এইমাত্র রায়পুরের বিমানবন্দরে রাষ্ট্রীয় হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হওয়ার দুঃখজনক সংবাদ পেয়েছি। এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় আমাদের উভয় পাইলট ক্যাপ্টেন পান্ডা এবং ক্যাপ্টেন শ্রীবাস্তব মারা গেছেন। সৃষ্টিকর্তা এই শোকের সময়ে নিহতের পরিবারের সদস্যদের শক্তি এবং বিদেহী আত্মার শান্তি দিন।’


ভারতীয় সংবাদমাধ্যম বলছে, যে হেলিকপ্টারটি দুর্ঘটনার কবলে পড়েছে তা মূলত সরকারি কাজে ব্যবহৃত হতো বলে জানা গেছে। এছাড়া ব্যবহার করা হতো প্রশিক্ষণের কাজেও। হেলিপ্যাডে অবতরণের সময় যখন হেলিকপ্টারটি যখন ভেঙে পড়ে তখনও দেহে প্রাণ ছিল দুই পাইলটের।


তবে জ্ঞান হারিয়েছিলেন দু’জনেই। তড়িঘড়ি তাদের উদ্ধার করে নিকটবর্তী রামকৃষ্ণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানেই মারা যান তারা। শরীরের একাধিক জায়গায় মারাত্মক আঘাত ও অতিরিক্ত রক্তক্ষণের কারণেই তাদের বাঁচানো সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।